ইউরোজোনের PMI কি পারবে EURO এর মূল্য বৃদ্ধি করতে?

ইউরোজোনের PMI কি পারবে EURO এর মূল্য বৃদ্ধি করতে? ইউরোজোনের PMI কি পারবে EURO এর মূল্য বৃদ্ধি করতে?

MarketDeal24.Com – গত কয়েক সপ্তাহ ধরে আমরা EURO এর মূল্য বৃদ্ধিতে বাধা সম্পর্কে আলোচনা করছি। ইউরোজোনের বড় বড় দেশগুলো অক্টোবরের শেষের দিকে লকডাউন ঘোষণা করেছিলো এবং আজকে জার্মানি তাদের আংশিক লকডাউনকে আরো এক মাসের জন্য বর্ধিত করার চিন্তা করছে। ফ্রান্স ও স্পেন তাদের ভাইরাসের সংক্রমণ কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আনতে পারলেও জার্মানী ও ইতালি তাদের ভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে হিমশিম খাচ্ছে।

জার্মানিতে সকল ধরনের দোকান খোলা থাকলেও ফ্রাসে শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় ব্যাবসা চালু রয়েছে। লকডাউনের কারণে ইউরো অঞ্চলের অর্থনীতিতে ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে এবং ইউরোপিয়ান কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো এর অর্থনৈতিক নীতিমালা পরিবর্তন এর সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

এই কারণে ইউরোজোনের অর্থনীতি খারাপ ভাবে পতনের দিকে গেলেও মুদ্রার উপরে প্রভাব পড়ছে না। এই সপ্তাহে আমরা ইউরোজোনের PMI রিপোর্ট পাবো। এর পাশাপাশি ইউরোজোনের কনফিডেন্স এবং জার্মানির IFO রিপোর্ট প্রকাশিত হবে। যদি রিপোর্ট দুর্বল আসে এবং আমরা আশা করছি দুর্বলই আসবে, তাহলে ইউরো এর মূল্যবৃদ্ধি স্থগিত হয়ে যেতে পারে। টেকনিক্যালি EUR/USD তার মোমেন্টাম হারানো শুরু করেছে এবং 1.1820 এর নীচে নেমে গেলে 1.16 তে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হবে।

তবে দুর্বল হওয়ার জায়গায় গত সপ্তাহে EUR/USD পেয়ারটি 1.18 এর উপরে লেনদেন করেছে। সাম্প্রতিক সময়ে আমরা বলেছিলাম এই পেয়ারটি 1.18 এর বদলে 1.16 এর আশেপাশে অবস্থান করবে। কিন্তু বাস্তবতা হলো ইউরোজোন থেকে সবকিছুতে যুক্তরাষ্ট্র কয়েক সপ্তাহ পিছিয়ে রয়েছে, তাই ইউরো এর মূল্য হ্রাস পাচ্ছে না।

Forexmart

যুক্তরাষ্ট্রে বৃহস্পতিবারে থ্যাঙ্কসগিভিং এর অনুষ্ঠান বন্ধ থাকবে, যার ফলে বৃহস্পতিবারে ও শুক্রবারে মার্কেট কিছুটা নিরব থাকবে। ইউরো জোনের রিপোর্টগুলো ছাড়াও যুক্তরাজ্যের PMI, যুক্তরাষ্ট্রের কনজিউমার কনফিডেন্স রিপোর্ট এবং ফেডারেল ওপেন মার্কেট কমিটি এর ডাটা প্রকাশিত হবে। USD/JPY গত সপ্তাহে নিম্নমুখী অবস্থায় ছিলো এবং এই সপ্তাহেও মূল্য হ্রাস পাবে পেয়ারটির।

শুক্রবারের কানাডিয়ান খুচরা বিক্রির রিপোর্টের পরে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড এবং কানাডিয়ান ডলারের মূল্য বৃদ্ধি এই সপ্তাহেও অব্যাহত থাকবে। কানাডার কনজিউমার ব্যয় ১.১% বৃদ্ধি পেয়েছে, যা কিনা প্রত্যাশার চেয়ে ৫গুণ বেশি। দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়াতে লকডাউন তুলে নেওয়া হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের খুচরা বিক্রি প্রত্যাশার চেয়ে ভালো হয়েছে, যেখানে অক্টোবরে ১.২% বৃদ্ধি পেয়েছে। এর ফলে স্টার্লিং এর মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে ইউরো ও মার্কিন ডলারের বিপরীতে। এই সপ্তাহে দেশটির নভেম্বর মাসের PMI প্রকাশিত হবে।

leave a reply