করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি মার্কিন অর্থনীতির প্রবৃদ্ধিকে ধীর করে দিয়েছে: ফেডারেল রিজার্ভ

করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি মার্কিন অর্থনীতির প্রবৃদ্ধিকে ধীর করে দিয়েছে: ফেডারেল রিজার্ভ করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি মার্কিন অর্থনীতির প্রবৃদ্ধিকে ধীর করে দিয়েছে: ফেডারেল রিজার্ভ

MarketDeal24.Com – করোনা ভাইরাস এর সংক্রমণ বৃদ্ধি বিশ্বের প্রায় সকল দেশের অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের গতিকে কমিয়ে দিচ্ছে। মহামারীটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি এবং সাধারণ জনগনের জীবন যাত্রার মাঝে প্রাথমিকভাবে প্রত্যাশার চেয়ে বেশী সময় ধরে নেতিবাচক প্রভাব বিস্তার করবে বলে বুধবার মার্কিন ফেডারাল রিজার্ভ এর তিনজন নীতিনির্ধারক জানিয়েছেন।

মার্চ মাসে করোনা ভাইরাস আঘাত হানার পরে প্রথমবারের মতো মে এবং জুন মাসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। তবে জুলাই মাসে দেশের কিছু অংশে নতুন করে আবার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়লে এই প্রবৃদ্ধি নতুন করে বাধার মুখমুখি হয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কর্মকর্তা এই তথ্য জানিয়েছেন।

এদিকে CNBC কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ডালাস ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকের সভাপতি রবার্ট কাপলান বলেছিলেন, “ভাইরাসের পুনরুত্থানের সমস্যাটি কিছুতা হ্রাস পেয়েছে। আর তাই নতুন করে কিছুটা পুনরুদ্ধার হবে বলে আমরা প্রত্যাশা করছি।”

অন্যদিকে লিবারেল আর্টস ম্যাক্রোকোনমিক্স সম্মেলনের এক বক্তব্যে ক্লেভল্যান্ড ফেডের প্রেসিডেন্ট লরেট্টা মেসটার বলেছেন যে, করোনা ভাইরাস সংক্রমণের বৃদ্ধি অর্থনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির জন্য নিম্নমুখী অবস্থানের ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলেছে এবং মার্কিন অর্থনীতি পুনরায় সচল করার বিষয়টি প্রাথমিকভাবে প্রত্যাশিত অনেকের চেয়ে বেশি দীর্ঘায়িত হতে পারে।

Forexmart

লরেট্টা মেসটার বলেন

মেসটার বলেন, “ক্রমবর্ধমান হারে সংক্রমণের বৃদ্ধি সম্পূর্ণরূপে স্মরণ করিয়ে দেয় যে এখানে বিভিন্ন পরিস্থিতি কার্যকর হতে পারে।”

এছাড়া কাপলান বলেছেন যে, বেকার আমেরিকান এবং রাজ্য ও স্থানীয় সরকারগুলির এই সংকট মোকাবেলা করতে আরো সাহায্যের প্রয়োজন হবে। নীতিতির্ধারকেরা গত সপ্তাহে বেকারত্বের সুবিধাতে দেয়া 600 ডলারের সাপ্তাহিক পরিপূরক আরো বাড়ানোর জন্য দেয়া একটি সময়সীমা ছাড়িয়ে গেছেন। এবং উদ্দীপনাটি নিয়ে আরো এক দফা আলোচনার মধ্যে আছেন তারা।

তিনি বলেন, “আমি বিশ্বাস করি অর্থনীতিতে বেকারত্বের সুবিধাগুলির ধারাবাহিকতা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। এটি হয়তো যেমনটা চাওয়া হচ্ছে তেমন নাও হতে পারে, তবে আমাদের একটি ধারাবাহিকতা দরকার।”

এদিকে মেসটার বলেন, ব্যবসা, পরিবার ও ভোক্তাদের নতুন করে উৎসাহ দেওয়ার জন্য আরো আর্থিক সহায়তার প্রয়োজন। তিনি বলেন যে কংগ্রেস একটি উদ্দীপনা বিল পাস করবে এই বিষয়ে তিনি যথেষ্ট আশাবাদী।

অন্যদিকে মার্কিন ফেডারাল রিজার্ভ এর ভাইস চেয়ারম্যান রিচার্ড ক্লারিদা বলেছেন যে, জুলাইয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ধীর হয়ে গেছে। তবে তৃতীয় প্রান্তিকে তা বেড়েছে এবং এটি আবারো প্রাক-মহামারী স্তরে পৌঁছতে পারে।

ক্লাদিরা বলেন, “আমি বিশ্বাস করি, মহামারী আঘাতের পূর্বে আমরা ফেব্রুয়ারিতে যে ক্রিয়াকলাপের পর্যায়ে ছিলাম সেই অবস্থানে ফিরে আসার জন্য অর্থনীতি কিছুটা সময় নেবে, তবে আমরা আবার ফিরে আসব।”

এর মাঝে কাপলান পূর্বাভাস দিয়েছেন যে ২০২০ পূর্ণবছরের জন্য, মার্কিন অর্থনীতি 5% হ্রাস পাবে এবং মেসটার ২০১৯ সালের শেষ থেকে 6% হ্রাস পাবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে।

তবে ফেড কর্মকর্তারা গত সপ্তাহে তাদের নীতিনির্ধারণী বৈঠকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে, ফেব্রুয়ারি মাসে শুরু হওয়া মন্দা থেকে অর্থনীতিকে প্রত্যাবর্তনে সহায়তা করতে তারা কী করতে পারে সে বিষয়ে তারা আলোচনা করছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক তাদের সুদের হার প্রায় শূন্যের কাছাকাছি নিয়ে এসেছে। এবং আর্থিক বাজার ও সহায়তামূলক ব্যবসায়ের ব্যাকস্টপ করার জন্য প্রায় এক ডজন জরুরি কর্মসূচি চালু করেছে।

EUR/USD: টেকনিক্যাল এনালাইসিস | ৬ই আগস্ট, ২০২০