U.N. FAO : জুন মাসে বিশ্বব্যাপী খাদ্য পণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে রয়েছে, কমেছে ডেইরি পণ্যের দাম

U.N. FAO : জুন মাসে বিশ্বব্যাপী খাদ্য পণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে রয়েছে, কমেছে ডেইরি পণ্যের দাম U.N. FAO : জুন মাসে বিশ্বব্যাপী খাদ্য পণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে রয়েছে, কমেছে ডেইরি পণ্যের দাম

রোম (রয়টার্স) – জাতিসংঘের খাদ্য সংস্থা বৃহস্পতিবার জানিয়েছে, টানা পাঁচ মাস ধরে খাদ্য পণ্যের দাম ঊর্ধ্বমুখী থাকার পর জুন মাসে বিশ্বব্যাপারী খাদ্য পণ্যের দাম কিছুটা সহনীয় পর্যায়ে পৌঁছেছে। এরই সাথে ডেইরি পণ্যে কিছুটা দাম কমতে লক্ষ্য করা গেছে।

খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (FAO)

২০১৯ সালে বিশ্বব্যাপী খাদ্যশস্য উৎপাদনের পূর্বাভাস অপরিবর্তিত রেখেছে যা জুন মাসেও একই রকম ছিল তবে গমের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি উৎপাদন হবে বলে আশা করা হচ্ছে। তাই ধারণা করা হচ্ছে ২০১৮ সালের তুলনায় এবছর ১.২% বেশি শস্য উৎপাদন হবে।

খাদ্য ও কৃষি সংস্থার খাদ্যমূল্য সূচকে একঝুড়ি খাদ্যশস্য, তৈলবীজ, দুগ্ধজাত দ্রব্য, মাংস এবং চিনির মাসিক পরিবর্তনের পরিমাপ করে থাকে। এই সূচকের মান মে মাসে ১৭৩.৫ পয়েন্টে থাকার পর গত মাসে ১৭৩.০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। এই সূচকের মান পূর্বে ১৭২.৪ পয়েন্ট হতে পারে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছিল।

খাদ্য ও কৃষি সংস্থার ডেইরি মূল্য

ডেইরি মূল্য সূচকের মান মে মাসের তুলনায় ১১.৯ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে তবুও রপ্তানি সুযোগ বৃদ্ধি পাওয়া এবং দুর্বল আমদানি চাহিদার কারণে জুন মাসে দ্রব্যমূলের দুর্বলতা বৃদ্ধি পেতে থাকে ফলে বছর শুরুর পর থেকে এই সূচকের মান ৯.৪% ঊর্ধ্বমুখী রয়েছে।

Forexmart

খাদ্য ও কৃষি সংস্থার শাকসবজির মূল্য সূচকও হ্রাস পেয়েছে

ডিসেম্বর মাসের পর থেকে প্রতি মাসে এই সূচক কমতে লক্ষ্য করা গেছে। গত মাসেও এই সূচকের পরিমান ১.৬% হ্রাস পেয়ে ডিসেম্বরের পর থেকে সর্বনিম্ন অবস্থানে অবস্থান করছে। এদিকে পাম অয়েল এবং সয়াবিন তেলের দামও হ্রাস পেয়েছে।

মূলত চলতি বছর প্রচুর পরিমানে ভুট্টা রপ্তানিতে বাজারে কিছুটা প্রভাব পড়েছে যার ফলে মে মাসের তুলনায় খাদ্য শস্যের মূল্যের সূচক ৬.৭% বৃদ্ধি পেয়েছে এবং এক বছর আগে এই সূচকে বৃদ্ধির হার ছিল ৩.৮%। মূলত ধরানো করা হচ্ছিলো বিশ্বের সবচেয়ে বড় উৎপাদনের দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাদের রপ্তানি কিছুটা সীমাবদ্ধ করবে।

এদিকে মাংস জাতীয় পণ্যের মূল্য সূচক ১.৫% বৃদ্ধি পেয়েছে এবং চিনির ক্ষেত্রে এই সূচকের মান ৪.২% বৃদ্ধি পেয়েছে।

২০১৯ সালে খাদ্য ও কৃষি সংস্থা তাদের তৃতীয় পূর্বাভাসে বলেছে, এই বছর খাদ্যশস্য উৎপাদনের পরিমান ২.৬৮৫ বিলিয়ন টন ছাড়িয়ে যাবে যা জুনে প্রকাশিত রিপোর্টের তুলনায় অপরিবর্তিত রয়েছে এবং ২০১৮ সালের ১.২% বৃদ্ধির হার ধরে রাখবে। 

খাদ্য ও কৃষি সংস্থা জানিয়েছে, ২০১৯/২০ অর্থবছরের জন্য খাদ্যশস্য উৎপাদনের পূর্বাভাস বৃদ্ধি পাবে এবং ২০১৮/১৯ অর্থবছরে তা এখন ২.৭০৮ বিলিয়ন টন ছাড়িয়ে যেতে পারে।

leave a reply