টেকনিক্যাল এনালাইসিস | ২৮শে জুলাই, ২০২০

EUR/USD:

প্রত্যাশার চেয়ে ভালো মার্কিন টেকসই পণ্যের ডাটা মার্কিন ডলার ইনডেক্স এর উপর ইতিবাচক প্রভাব ফেলতে ব্যর্থ হয়েছে এবং গতকালকে তা 93.50 এর নিচে নেমে গিয়েছে। এই নিয়ে টানা সাত সেশন মূল্য হ্রাস পেলো মার্কিন ডলার ইনডেক্সের। চার ঘন্টার টাইমফ্রেমে EUR/USD পেয়ারটি 1.17 এর উপরে উঠে রেসিস্টেন্স 1.1723 (বর্তমানে সাপোর্ট) কে অতিক্রম করেছে। বর্তমানে পেয়ারটি Quasimodo রেসিস্টেন্স 1.1793 এবং 1.18 হ্যান্ডেলকে টার্গেট করেছে।

টানা পাঁচ সপ্তাহ ধরে মূল্যবৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় পরে সাপ্তাহিক টাইমফ্রেমে সম্প্রতি প্রাইস Quasimodo রেসিস্টেন্স 1.1733 এর সাথে মিলিত হয়েছে। এই লেভেলকে অতিক্রম করলে 2018 সালের ওপেনিং লেভেল 1.2004 তে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে, যেখানে মূল্য হ্রাস পেলে 2019 সালের ওপেনিং লেভেল 1.1445 তে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ডেইলি টাইমফ্রেমে টানা সাতদিন ধরে বুলিশ অবস্থায় থেকে সাপোর্ট লেভেল 1.1594 থেকে 100 পিপ্স বৃদ্ধি পেয়েছে এবং বর্তমানে Quasimodo রেসিস্টেন্স 1.1789 এর সাথে অবস্থান করছে।

বিবেচনার জায়গাগুলো:

চার্ট অনুযায়ী বায়াররা এখনো শক্তিশালী অবস্থায় রয়েছে। সাপ্তাহিক প্রাইস Quasimodo রেসিস্টেন্স 1.1733 কে অতিক্রম করার সম্ভাবনা থাকলেও ডেইলি টাইমফ্রেমে 1.1789 এর আগে কোনো রেসিস্টেন্স দেখা যাচ্ছে না। চার ঘন্টার টাইমফ্রেমে সাপোর্ট লেভেল 1.1723 থেকে পরীক্ষিত হতে পারে এবং Quasimodo রেসিস্টেন্স 1.1793/1.18 তে যেতে পারে।

Forexmart

GBP/USD:

সোমবারে মার্কিন ডলারের মূল্য হ্রাস পেয়েছে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে। এর ফলে মার্কিন অর্থনীতিতে প্রভাব পড়েছে এবং GBP/USD পেয়ারটির মূল্য পাঁচ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ 1.2902 পর্যায়ে গিয়েছে।

চার ঘন্টার টাইমফ্রেমে প্রাইস 1.29 এর সাথে অবস্থান করছে, যার পাশে রয়েছে ABCD completion 1.2896। 1.29 এ কিছুটা সময় প্রাইস থাকলেও, টেকনিক্যাল চাপে আবার 1.28 এ ফিরে আসে। 1.29 এর উপরে Quasimodo রেসিস্টেন্স 1.2939 তে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সাপ্তাহিক টাইমফ্রেমে সর্বোচ্চ 1.5930 থেকে শুরু হওয়া ট্রেন্ড লাইন রেসিস্টেন্স এর সাথে অবস্থান করছে, এই লেভেলকে ব্রেক করলে 127.2% Fibonacci extension point 1.3043 তে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ডেইলি টাইমফ্রেমে সর্বনিম্ন 1.1409 থেকে শুরু হওয়া সাপোর্ট লেভেলকে অতিক্রম করেছে।

বিবেচনার জায়গাগুলো:

সম্প্রতি ট্রেন্ড লাইন রেসিস্টেন্স সাপ্তাহিক টাইমফ্রেমে সেলারদেরকে 1.29 এ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রেখেছে। চার ঘন্টার টাইমফ্রেমে সাইকোলজিক্যাল লেভেল 1.28 কার্যকর অবস্থায় রয়েছে।

চার ঘন্টার টাইমফ্রেমে 1.29 এর উপরে ক্লোজিং হলে বায় বৃদ্ধি পাবে এবং চার ঘন্টার Quasimodo রেসিস্টেন্স 1.2939 কে টার্গেট করবে প্রাথমিক টেক প্রফিট হিসেবে।

AUD/USD:

সোমবারে মার্কিন ডলারের বিপরীতে তার শক্তিশালী অবস্থা অব্যাহত রেখেছে অস্ট্রেলিয়ান ডলার। গতকালকে পেয়ারটির প্রাইস 0.71 এর উপরে অবস্থান করেছে। চার ঘন্টার টাইমফ্রেমে পেয়ারটি বর্তমানে Quasimodo রেসিস্টেন্স 0.7193 কে টার্গেট করেছে, যার পরে রয়েছে 0.72 হ্যান্ডেল। 0.71 এর নিচে সবার নজর থাকবে 0.7042 এর প্রতি, যার সাথে রয়েছে 38.2% Fibonacci retracement ratio 0.7048।

বড় টাইমফ্রেমের দিকে তাকালে দেখা যায়, সাপ্তাহিক প্রাইস 2020 সালের ওপেনিং লেভেল 0.7016 এবং 2019 সালের ওপেনিং লেভেল 0.7042 কে অতিক্রম করে রেসিস্টেন্স 0.7147 এর উপরে উঠেছে। 0.7147 এর উপরে গেলে প্রাইস 0.7308 তে পৌঁছাতে পারে।

ডেইলি টাইমফ্রেম লক্ষ্য করলে দেখা যাচ্ছে যে, প্রাইস Quasimodo রেসিস্টেন্স 0.7168 থেকে হ্রাস পাওয়া শুরু করেছে, যা Quasimodo রেসিস্টেন্স 0.7233 এর ঠিক নীচে অবস্থান করেছে।

বিবেচনার জায়গাগুলো:

চার ঘন্টার টাইমফ্রেমে প্রাইস 0.71 এর উপরে বায়িং বৃদ্ধি করে সাপ্তাহিক রেসিস্টেন্স 0.7147 এবং ডেইলি রেসিস্টেন্স 0.7168 কে টার্গেট করেছে। তবে নিম্নমুখী চাপের কারণে প্রাইস চার ঘন্টার টাইমফ্রেমে 0.71 কে ব্রেক করে 0.7042 তে নেমে যেতে পারে।

USD/JPY:

মার্কিন ডলারের উপর চাপ বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় ফলে সোমবারে USD/JPY এর প্রাইস 106 হ্যান্ডেল এবং Quasimodo সাপোর্ট 105.71 (বর্তমানে রেসিস্টেন্স) এর নিচে নেমে পরবর্তী সাপোর্ট হিসেবে 105 কে টার্গেট করেছে।

শুক্রবারে, ডেইলি চার্ট অনুযায়ী প্রাইস Quasimodo সাপোর্ট 106.35 (বর্তমানে রেসিস্টেন্স) কে অতিক্রম করেছে। সোমবারের মূল্যহ্রাস ধরে রেখে আজকে সাপোর্ট লেভেল 105.05 তে প্রাইস নেমে যেতে পারে, যা কিনা সাপ্তাহিক সাপোর্ট 104.70 এর উপরে অবস্থিত।

বিবেচনার জায়গাগুলো:

চার ঘন্টার টাইমফ্রেমে Quasimodo সাপোর্ট 105.71 থেকে মূল্য পুনরুদ্ধার করার সম্ভাবনা হ্রাস পেয়েছে যেহেতু সাপ্তাহিক ও ডেইলি টাইমফ্রেমে প্রাইস সাপোর্ট লেভেল ব্রেক করে নীচে নেমে গিয়েছে। যদিও 106 এর উপরে প্রাইস গেলে বায়াররা কিছুটা সাহস ফিরে পাবে এবং 106.35 কে টার্গেট করবে। তবে 106.35 এই সপ্তাহে নজর রাখার মতো একটি রেসিস্টেন্স, যেখানে সেলাররা প্রাইস ডেইলি সাপোর্ট লেভেল 105.05 এ স্থির করার চেষ্টা করবে।

টেকনিক্যাল দেখে ট্রেড করা ট্রেডাররা 104.70/105.05 এর মধ্যে মূল্য পুনরুদ্ধার করার চেষ্টা করবে, যেখানে সাপ্তাহিক সাপোর্ট 104.70 এবং ডেইলি সাপোর্ট 105.05 ও 105 হ্যান্ডেল রয়েছে।

USD/CAD:

সোমবারে কানাডিয়ান ডলারের বিপরীতে মার্কিন ডলারের মূল্যহ্রাস পেয়েছে এবং পেয়ারটির মূল্য 1.34 এর নিচে নেমে গিয়েছে। পরবর্তীতে 1.34 রেসিস্টেন্স হিসেবে কাজ করেছিএ এবং ক্লোজিং এর সময় প্রাইস চার ঘন্টার Quasimodo সাপোর্ট লেভেল 1.3356 এ নেমে যায়।

ট্রেডাররা এটাও খেয়াল রাখবে যে বর্তমান Quasimodo সাপোর্ট এর ঠিক নিচেই আরো একটি Quasimodo সাপোর্ট 1.3343 রয়েছে, যা ব্রেক করলে প্রাইস 1.33 তে নেমে যাবে। ডেইলি টাইমফ্রেমে সাপোর্ট রয়েছে 1.3303 লেভেলে, যা কিনা 2016 সালের পর থেকে খুবই গুরুত্বপূর্ণ সাপোর্ট/রেসিস্টেন্স হিসেবে কাজ করছে।

2017 এর ওপেনিং লেভেল 1.3434 সাপোর্ট হিসেবে কাজ করেছে গত সপ্তাহে ক্লোজিং এর সময়। এই লেভেলের নীচে সাপোর্ট হিসেবে কাজ করবার সর্বনিম্ন 1.2061 থেকে নেওয়া চ্যানেল সাপোর্ট। তবে পেয়ারটির পক্ষে বিনিয়োগ বৃদ্ধি পেলে 2016 সালের ওপেনিং লেভেল 1.3814 রেসিস্টেন্স হিসেবে কাজ করবে। এই লেভেলকে অতিক্রম করলে প্রাইস 1.4190/1.3912 এর মধ্যে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বিবেচনার জায়গাগুলো:

সাপ্তাহিক টাইমফ্রেমে 1.3434 এর নিচে বিয়ারিশ অবস্থা দেখে যাচ্ছে মার্কেটে। বড় টাইমফ্রেমে মূল্য হ্রাস পেলেও ডেইলি সাপোর্ট 1.3303 থেকে মার্কেট বুলিশ হতেও পারে।

1.3343 কে ব্রেক করে নীচে নেমে গেল চার ঘন্টার টাইমফ্রেমে সারাদিনের সেলাররা চাইবে প্রাইসকে 1.33 তে নিয়ে যেতে।

USD/CHF:

এই সপ্তাহে 0.9187 থেকে প্রাইস নেমে সাপ্তাহিক সাপোর্ট 0.9151 এবং ডেইলি সাপোর্ট 0.9072 তে নেমে যেতে পারে।

গত সপ্তাহে পেয়ারটির প্রাইস প্রায় 180 পিপ্স হ্রাস পেয়ে রেসিস্টেন্স 0.9447 এর অনেক নীচে নেমে গিয়েছে। এর ফলে একটি ফুল বডি বিয়ারিশ ক্যান্ডেল গঠন করে Quasimodo সাপোর্ট 0.9255 এর নিচে নেমে গিয়েছে। যদিও Quasimodo এর সর্বনিম্ন পয়েন্ট 0.9187 কে অতিক্রম না করেও প্যাটার্ন টি এখনো কার্যকর অবস্থায় রয়েছে।

চার্ট অনুযায়ী 0.92 একটি দুর্বল রেসিস্টেন্স, এই লেভেলটি ব্রেক করলে Quasimodo সাপোর্ট 0.9161 তে প্রাইস যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

0.92 এর নিচে সেল স্টপ নির্ধারন করা হয়েছে। এর ফলে এই সপ্তাহে উপরে উল্লেখিত রাউন্ড নাম্বারের নিচে নেমে যেতে পারে পেয়ারটির প্রাইস, যা কিনা ২০১৫ সাল এর পরে কখনো হয়নি। এদিকে ডেইলি টাইম ফ্রেম অনুসারে প্রাইস সাপোর্ট লেভেল 0.9187 তে নেমে যেতে পারে।

বিবেচনার জায়গাগুলো:

আজকে সকালে চার ঘন্টার টাইমফ্রেমে 0.92 তে মূল্য পরীক্ষিত হয়ে বুলিশ অবস্থার সৃষ্টি হয়ে প্রাইস 0.9250 তে যেতে পারে,যা কিনা সাপ্তাহিক রেসিস্টেন্স 0.9255 এর সাথেই অবস্থিত।

0.92 সাপোর্ট লেভেলে ব্রেক করলে পরবর্তী টার্গেট হিসেবে কাজ করবে 0.9151 লেভেলটি।

XAU/USD (GOLD):

চীন-মার্কিন দ্বন্দ্বের কারণে মার্কিন ডলার ইনডেক্সের মূল্য হ্রাস পেয়েছে এবং GOLD এর মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে।

সোমবারে GOLD তার সর্বকালের সর্বোচ্চ পর্যায় 1967.4 এ গিয়েছিল।

প্রাইস বর্তমানে চার্ট এর বাহিরে অবস্থান করছে। ট্রেডাররা 1921.0 কে সাপোর্ট হিসেবে ব্যবহার করছে। আজকে মূল্য হ্রাস পেয়ে 1942.8 থেকে নেমে যেতে পারে।

বিবেচনার জায়গাগুলো:

বর্তমান পরিস্থিতি অনুযায়ী, বায়াররা আজকে বুলিশ অবস্থা তৈরি করতে চাইবে।

চার ঘন্টার টাইমফ্রেমে 1390.7/1942.8 থেকে চাহিদা বৃদ্ধি পেতে পারে চার ঘন্টার বুলিশ ক্যান্ডেল স্টিক প্যাটার্ন এর জন্য। 1921.0 (পূর্ববর্তী সর্বোচ্চ) থেকে চাহিদা বৃদ্ধি পেয়ে প্রাইস আজকে বৃদ্ধি পেতে পারে

মঙ্গলবার বাজারে লক্ষ্য রাখার মতো ৩ টি বিষয় | ২৮শে জুলাই, ২০২০

৪ Comments

  • COVID-19 ভ্যাক্সিনের উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য Fujifilm এর সাথে চুক্তি যুক্তরাষ্ট্রের
    জুলা ২৮, ২০২০
  • ফান্ডামেন্টাল এনালাইসিস | ২৮শে জুলাই, ২০২০
    জুলা ২৮, ২০২০
  • ফান্ডামেন্টাল এনালাইসিস | ২৮শে জুলাই, ২০২০
    আগ ১১, ২০২০
  • COVID-19 ভ্যাক্সিনের উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য Fujifilm এর সাথে চুক্তি যুক্তরাষ্ট্রের
    আগ ২৪, ২০২০

leave a reply