ফরেক্সে লেনদেন কেন করবেন ?

1
659 views

ফরেক্সে লেনদেনের কিছু বিশেষ সুবিধাসমূহ

নিম্নে উল্লেখিত সুবিধাসমূহের কারণে আজকাল অনেকে ফরেক্স মার্কেটকে বেছে নিচ্ছেন , যেমন –

. কমিশন বিহীন: এই বাজারে লেনদেন করতে হলে একজন বণিককে নানা ধরণের ফী যা কিনা অন্যান্য বাজারে বিদ্যমান, তার সম্মুখীন হতে হবে না | যেমন: ক্লিয়ারিং ফিস, এক্সচেঞ্জ ফী, সরকারি ফী, ব্রোকারেজ ফী | এই সকল ফী ফরেক্সে না থাকায় লেনদেন করে লাভ তোলা অনেক সহজ | তবে এই বাজারে অধিকাংশ খুচরা ব্রোকারেজরা বিড/আস্ক (Bid/Ask) মূল্যের পার্থক্য যা স্প্রেড (spread) নাম পরিচিত, তার দ্বারাই কিছু উপার্জন করে থাকেন |

. মধ্যস্থকারীর অনুপস্থিতি: স্পট ট্রেডিং, যা ফরেক্সের অন্যতম প্রধান বৈশিষ্ট্য, এর মাধ্যমে কোনো ধরণের মধ্যস্থকারী ছাড়াই একজন বণিক সরাসরি লেনদেন করতে পারেন |

. লটের আকার পছন্দের স্বাধীনতা: অন্যান্য বাজারে যেমন ফিউচারস মার্কেটে বিনিয়োগকৃত লটের আকার বাজার নির্ধারণ করে দেয় | উদাহরণস্বরূপ ফিউচারস এর রুপার একটি স্ট্যান্ডার্ড লটের আকার 5.000 আউন্স | কিন্তু ফরেক্সে আপনি নিজেই নিজের যত বেছে নেয়ার সুযোগ পাচ্ছেন |

. লেনদেন করার সাথে জড়িত আনুষঙ্গিক ব্যয় খুবই কম: ফরেক্সে খুচরা লেনদেনে আনুষঙ্গিক খরচ মোট বিনিয়োগকৃত অর্থের 0.1% এরও কম | অন্যদিকে, এই বাজারে বৃহিত লেনদেনের ক্ষেত্রে আনুষঙ্গিক ব্যয় 0.07% এর চেয়েও কমে নামতে পারে যা অন্য বাজারে অকল্পনীয় |

. বাজার ২৪ ঘন্টাই খোলা: ফরেক্স বাজার চালু হওয়ার জন্য কোনো ধরণের আনুষ্ঠানিকতা নেই | পেশাজীবীদের জন্য এটি একটি বিশেষ সুবিধা | তারা চাইলে দিনের যেকোনো সময় লেনদেন করতে পারেন |

. কোনো একক লেনদেনকারী এই বাজারে কারচুপি করতে পারবে না: এই বাজারটি অনেক বৃহৎ হওয়ায় কোনো দেশের সরকার, বা কোনো দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক বা কোনো বড় বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এক এই বাজারে প্রচলিত কার্রেন্সির মূল্যের হেরফের করা সম্ভব নয় |

. লেভারেজ: ফরেক্স মার্কেটে লেনদেন করার অন্যতম সুবিধা হলো লেভারেজ (leverage) এর মাধ্যমে ট্রেড করা | যার ফলে অতি ক্ষুদ্র অর্থ নিয়েও অধিক লাভ করা যায় |

. তারল্যের প্রাচুর্য: ফরেক্স মার্কেটটি আকার এবং ব্যপ্তিতে অনেক বড় হওয়ায় একজন বণিক দিনের যেকোনো মুহূর্তে লেনদেন করতে পারবেন | তিনি কোনো মুদ্রা বিক্রি করতে চাইলে নিশ্চই এই বাজারে ঐ সময়ে কেও না কেও আছেন যিনি ঐ মুদ্রাটি কিনতে আগ্রহী | ফলে ঐ ট্রেডারকে তার মুদ্রা বিক্রির উদ্দেশ্যে বেশি অপেক্ষা করতে হচ্ছে না | এটিই হলো তারল্য |

. বাজারে প্রবেশে বাধা খুবই কম: আন্তর্জাতিক বাজারে মুদ্রার ব্যবসা কথাটা শুনলে অনেকের মনে কোনো বৃহৎ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ধারণা আসে | কিন্তু এই ধারণা সম্পূর্ণ সত্য নয় | এই বাজারে বৃহৎ প্রতিষ্ঠানের বিনিয়োগ থাকলেও একজন ক্ষুদ্র ট্রেডার তার সঞ্চিত সামান্য অর্থ নিয়েও এই বাজারে লেনদেনের জন্যে প্রবেশ করতে পারেন |

১০. শিক্ষার জন্যে বিদ্যমান ফ্রি জিনিসের সমাহার: অধিকাংশ ব্রোকাররা তাদের ট্রেডারদেরকে ‘ডেমো’ (DEMO) একাউন্ট খুলার সুযোগ প্রদান করে থাকে | সাথে পরিষেবা হিসেবে ফ্রি নিউস এনালাইসিস এবং ক্ষেত্র বিশেষে সিগ্নালিংও (signaling) প্রদান করা হয় |

ফরেক্স বনাম ষ্টক

বিনিয়োগের ক্ষেত্র হিসেবে পুঁজিবাজার বেশ জনপ্রিয় হলেও ফরেক্সের সাথে তুলনায় এই বাজারের রয়েছে কিছু মৌলিক পার্থক্য | যার ফলে ট্রেডারদের নিকট এই বাজারে বিনিয়োগের আগ্রহ কমেছে অনেক | পার্থক্যসমূহ নিম্নে তুলে ধরা হলো:

ফরেক্স বনাম ফিউচারস মার্কেট ট্রেডারদের নিকট নিজের জন্য আবেদন তৈরিতে যেমন ফরেক্স এর কাছে ষ্টক মার্কেট অনেকটা পিছিয়ে ঠিক তেমনই ফিউচারস মার্কেটেরও রয়েছে নানা ধরণের নেতিবাচক দিক যা ফরেক্সকে করে তুলেছে সর্বসেরা | পুঁজিবাজারের মতো এগুলিও নিম্নে তুলে ধরা হলো ।

পূর্ববর্তী পরবর্তী

Facebook Comments

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.