ফেসবুকের বিজ্ঞাপন প্ল্যাটফর্মের তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন নিউইয়র্কের গভর্নর কুয়োমো

যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন বন্ধ করছে Facebook যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন বন্ধ করছে Facebook

(রয়টার্স) – নিউইয়র্কের গভর্নর এন্ড্রু কুয়োমো সোমবার, রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত বিজ্ঞাপনদাতারা ফেসবুক (NASDAQ:FB) ইনকর্পোরেশন প্ল্যাটফর্মটিতে বৈষম্যমূলকভাবে বিজ্ঞাপন ব্যবহার করছে এমন অভিযোগের তদন্তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আর্থিক পরিষেবা বিভাগকে নির্দেশ দিয়েছেন।

এই বছর সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমটির বিরুদ্ধে এটি দ্বিতীয় তদন্তের নির্দেশ যা কোনো রাজ্য সরকারের তরফ থেকে জারি করা হয়েছে।

ফেব্রুয়ারি মাসে কুয়োমো দুইটি সরকারি সংস্থাকে ফেসবুকের বিরুদ্ধে আনা একটি অভিযোগ তদন্তের আদেশ দিয়েছিলো। অভিযোগে বলা হয়েছিল ফেসবুক সম্ভবত ব্যবহারকারীদের অতি ব্যক্তিগত তথ্য যেমন স্বাস্থ এবং অন্যান্য সংবেদনশীল ডাটা তাদের স্মার্টফোন থেকে একসেস করছে।

সোমবার, কুয়োমো বিভিন্ন রিপোর্ট উদৃত করে বলেছেন যে, সামাজিক নেটওয়ার্ক বিজ্ঞাপনদাতাদের জাতি, বর্ণ, ধর্ম, পারিবারিক অবস্থান, লিঙ্গ ও অক্ষমতা সম্পর্কিত অন্যান্য শ্রেণির মধ্যে ভোক্তাদের বাদ দেওয়ার জন্য জিপ কোড তথ্য ব্যবহার করে বিজ্ঞাপনগুলি সংশোধন বা অবরোধ করার সুযোগ করে দেয়।

Forexmart

এই ব্যাপারে ফেসবুকের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানায়।

কোম্পানিটি ফেডারেল স্টোরে প্রায় একই ধরণের আর একটি তদন্তের মুখোমুখি হচ্ছে যার মধ্যে ট্রাম্প প্রশাসন যুক্তরাষ্ট্রের ফেয়ার হাউজিং অ্যাক্ট লঙ্ঘন করে, জাতি ভিত্তিক বৈষম্যমূলক বিজ্ঞাপন বিক্রি করার অভিযোগে ফেসবুককে অভিযুক্ত করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক অধিকার গোষ্ঠীর সাথে বিস্তৃত নিষ্পত্তির অংশ হিসাবে, বিজ্ঞাপনে বৈষম্য সক্ষম করার অভিযোগে করা পাঁচটি পৃথক মামলা দায়ের করে ফেসবুকে তার প্রদত্ত বিজ্ঞাপনের প্ল্যাটফর্মের পুনরাবৃত্তি করার জন্য সম্মত হওয়া সত্বেও এই অভিযোগ এসেছে।

গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়, ফেসবুকের ব্যবহারকারী বাড়ার দাবি করলেও তাদের লাইক–শেয়ার ২০ শতাংশ কমে গেছে।

ব্যবসা বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান মিক্সপ্যানেলের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা কেলেঙ্কারির পর ফেসবুকের লাইক, শেয়ার ও পোস্টের পরিমাণ ২০ শতাংশ কমে যায়। ওই সময় যুক্তরাজ্যের কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা নামের একটি নির্বাচনী পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ফেসবুক থেকে তথ্য হাতিয়ে নেয়, যা মাসব্যাপী বিভিন্ন গণমাধ্যমে আলোচনায় ছিল।

গত বছরের এপ্রিল মাসের পর থেকে কয়েক মাসের মধ্যে ফেসবুকের ব্যবহার ১০ শতাংশ পর্যন্ত কমতে দেখা যায়। পরে গ্রীষ্মের সময় ফেসবুকের ব্যবহার কিছুটা বাড়লেও পরে আবার কমতে শুরু করে।

leave a reply