বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ফরেক্স রিজার্ভের গুরুত্ব

বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ফরেক্স রিজার্ভের গুরুত্ব বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ফরেক্স রিজার্ভের গুরুত্ব

MarketDeal24.Com – একটি দেশের সার্বিক উন্নতির জন্য ফরেন কারেন্সি রিজার্ভের (ফরেক্স) কোনো বিকল্প নেই।

বৈদেশিক মুদ্রার মজুদ ব্যবহৃত হয় ফিক্সড রেট মূল্যমান ধরে রাখার জন্য, আর্থিক সম্পদ কাঙ্ক্ষিত মাত্রায় রাখা, রপ্তানি চালু রাখা এবং বিনিয়োগকারীদের আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধিতে।

বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ছাড়া অর্থনীতি থমকে দাঁড়ায়। আমদানির সময়ে অর্থ পরিশোধ কঠিন হয়ে দাঁড়ায়।

এশিয়ায় বৈদেশিক মুদ্রার মজুদে অনেকেই রাজত্ব করছে। এই বছর জুলাইয়ে বাংলাদেশের ফরেক্স রিজার্ভ ৩৭ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করে প্রথমবারের মত।

Forexmart

এই বছর জুন মাসে এক মাসে সর্বোচ্চ বৈদেশিক আয় বা রেমিটেন্স রেকর্ড হয় যা ১.৮৩ বিলিয়ন ডলার।

২০১৯-২০ অর্থ বছরে ১৮.২০ বিলিয়ন ডলার আসে রেমিটেন্স হিসেবে যা এর আগের অর্থ বছরের চেয়ে ১০.৮৭% বেশি। সে বছর বাংলাদেশে ১৬.৪৯ বিলিয়ন ডলার আসে রেমিটেন্সের মাধ্যমে।

আন্তর্জাতিক লেনদেনে মার্কিন ডলার এবং ইউরো সবচেয়ে প্রচলিত রিজার্ভ কারেন্সি হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে। এতে আমেরিকার মতো রাষ্ট্রের বেশি রিজার্ভ সংরক্ষণের প্রয়োজন পড়ে না।

জাপানিজ ইয়েন রিজার্ভ কারেন্সি হিসেবে ধীরে ধীরে নিজের অবস্থান প্রতিষ্ঠিত করছে। কিন্তু দেশটি দ্বিতীয় বৃহত্তম ফরেক্স রিজার্ভের অধিকারী। এর একটি কারণ জাপানের রপ্তানি। যেখানে দেশটি প্রতি বছর ৬০৫ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি করে থাকে।

ফরেক্স রিজার্ভ সংরক্ষণের বেশ কিছু শক্তিশালী কারণ রয়েছে। যেমন একটি দেশের নিজস্ব মুদ্রার মূল্যমান স্থির রাখতে ফরেক্স রিজার্ভের বিকল্প নেই।

কোনো দেশের নিজস্ব মুদ্রার মূল্যমান কমাতে চাইলে বৈদেশিক মুদ্রা ক্রয় বাড়িয়ে দিতে হয়। ফরেক্স রিজার্ভ অর্থনৈতিক ধসের সময়ে আর্থিক সম্পদে ভারসাম্য নিয়ে আসে।

ফরেক্স রিজার্ভ থাকলে বিনিয়োগকারীরা ভরসা পায়। এর দ্বারা বোঝা যায় কোনো দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক বিনিয়োগ রক্ষার্থে যথাযথ পদক্ষেপ নেবে। ফরেক্স রিজার্ভ নানা ধরনের অর্থ পরিশোধে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

leave a reply