বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপন: লকডাউনে কাজ করলেই লাখ টাকা ভাতা

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপন: লকডাউনে কাজ করলেই লাখ টাকা ভাতা বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপন: লকডাউনে কাজ করলেই লাখ টাকা ভাতা

MarketDeal24.Com – করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে দীর্ঘদিনের সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশের সরকার। এই ঝুঁকিপূর্ণ এবং দুর্যোগময় সময়ে যে সকল কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা কাজ করছেন তাদের জন্য ত্রিশ হাজার টাকা থেকে শুরু করে এক লাখ টাকা পর্যন্ত ভাতা দেয়া হবে যা বিশেষ প্রণোদনা ভাতা হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে।

এ নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক বাংলাদেশ ব্যাংক। উল্লেখ্য প্রজ্ঞাপনটির শিরোনাম ছিল “করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটিকালীন ব্যাংকে কর্মরত কর্মকর্তা/কর্মচারীদেরকে বিশেষ প্রণোদনা ভাতা প্রদান।”

প্রজ্ঞাপনটিতে বলা হয়, বিগত ২২শে মার্চ জারি করা প্রজ্ঞাপনে মহামারী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সকল ব্যাংককে ১৬ দফা নির্দেশনা প্রদানপূর্বক সেগুলো যথাযথভাবে অনুসরণের পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে।

পরবর্তীতে ৮ই এপ্রিল জারি করা আরেকটি প্রজ্ঞাপনে ব্যাংকে আগত বিভিন্ন ভাতা গ্রহণকারীসহ গ্রাহক/দর্শনার্থী/সাক্ষাৎ প্রার্থী ও কর্মকর্তা/কর্মচারী ব্যাংকে আসার পর যাতে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখেন সে বিষয়টি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে প্রয়োজনে স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তা গ্রহণ করার নির্দেশনাও প্রদান করা হয়েছে।

Forexmart

তবে আতঙ্কের বিষয় হলো ব্যাংকিং দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে কিছুসংখ্যক ব্যাংক কর্মকর্তা ও কর্মচারী ইতোমধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এই প্রতিকূল পরিস্থিতিতে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটিকালীন ব্যাংকিং খাতকে সচল রাখতে এবং সকল কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে যারা তাদের জীবন ও পরিবারকে ঝুঁকিতে রেখেও সক্রিয়ভাবে দায়িত্ব পালন করছেন তাদের দায়িত্ব পালনের স্বীকৃতি স্বরূপ বিশেষ প্রণোদনা প্রদানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এই আর্থিক প্রণোদনার বিষয়ে কিছু নির্দিষ্ট নীতিমালা প্রণয়ন করেছে বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক:

  • যে সকল ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ সাধারণ ছুটির সময়ে ব্যাংকে স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে এবং অবস্থান করে ব্যাংকিং কার্যক্রমে অংশগ্রহণের মাধ্যমে দায়িত্ব পালন করেছেন বা করছেন তারা বিশেষ প্রণোদনা ভাতা পাবেন।
  • সাধারণ ছুটির সময়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কমপক্ষে দশ কার্যদিবস স্বশরীরে ব্যাংকে কর্মরত থাকলে তা পূর্ণমাস হিসেবে গণ্য হবে। তবে দশ কার্যদিবসের কম স্বশরীরে ব্যাংকে কর্মরত থাকলে সেক্ষেত্রে আনুপাতিক হারে উক্ত ভাতা পাবেন।
  • ব্যাংকের স্থায়ী, অস্থায়ী ও চুক্তিভিত্তিক সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারী এই প্রণোদনা ভাতা পাবেন এবং অন্তর্ভুক্ত থাকবেন।
  • কর্মকর্তা-কর্মচারী তাদের নিজ নিজ মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ মাসিক হারে বিশেষ প্রণোদনা ভাতা হিসেবে পাবেন। যে সব অস্থায়ী বা চুক্তি ভিত্তিক কর্মকর্তা/কর্মচারীর মূল বেতন আলাদাভাবে নির্ধারিত নেই তারা মাসিক মোট বেতন-ভাতার ৬৫ শতাংশ মাসিক বিশেষ প্রণোদনা ভাতা হিসেবে পাবেন যা মূল বেতনের সঙ্গে যোগ হবে। তবে সবক্ষেত্রেই এ বিশেষ প্রণোদনা ভাতার পরিমাণ মাসিক ন্যুনতম ৩০ হাজার টাকা এবং সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা হবে।
  • সাধারণ ছুটি শুরু হওয়ার দিন থেকে মাস গণনা শুরু হবে। প্রতি ৩০ দিন অতিক্রম হওয়ার পর পুণরায় নতুন মাস গণনা শুরু হবে।

ব্যাংক কোম্পানি আইন, ১৯৯১ এর ৪৫ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে জারি করা এ নির্দেশনা সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটির মেয়াদকাল পর্যন্ত বহাল থাকবে বলেও প্রজ্ঞাপনে উল্লেখিত হয়েছে।

leave a reply