বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে “চীন-কেন্দ্রিক” আখ্যা দিয়ে কঠোর সমালোচনা ট্রাম্পের

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে "চীন-কেন্দ্রিক" আখ্যা দিয়ে কঠোর সমালোচনা ট্রাম্পের বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে "চীন-কেন্দ্রিক" আখ্যা দিয়ে কঠোর সমালোচনা ট্রাম্পেরTrump, Washington, USA - 02 Oct 2019

MarketDeal24.Com – মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প খুবই কঠোরভাবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) এর সমালোচনা করে বলেছেন, সংস্থাটি অনেক বেশি চীন কেন্দ্রিক এবং এই করোনা ভাইরাস মহামারীতে খারাপ উপদেশ দিচ্ছে।

ট্রাম্প একটি টুইটার বার্তায় বলেন, “বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সবকিছু এলোমেলো করে দিয়েছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাদের এত বড় একটা তহবিল দেয় তারপরেও তারা চীন কেন্দ্রিক। আমরা এই ব্যাপারটা পর্যবেক্ষন করছি। আমাদের ভাগ্য ভালো যে আমি তাদের দেওয়া “চীনের জন্য বর্ডার খুলে দেওয়ার” উপদেশ প্রত্যাখ্যান করেছিলাম। তারা কেনো এরকম ত্রুটি পূর্ণ উপদেশ দিয়েছিল?”

মঙ্গলবারে হোয়াইট হাউজে একটি সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিরুদ্ধে এই সব অভিযোগ করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ট্রাম্প আরো বলেন, “তারা তাদের জায়গাটা হারিয়ে ফেলেছে এবং আমরা তদের উপর অর্থ ব্যয় করা বন্ধ করে দিব। দীর্ঘ দিন অর্থ অনুদান বন্ধ রেখে দেখবো তারা কি করে।”

Forexmart

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক ট্রাম্প এর এই দাবী প্রত্যাখ্যান করেছেন।

তিনি বলেন, “সাধারন সম্পাদক এন্টোনিও গুতেরাস এর পক্ষ থেকে বলতে চাই, ডক্টর টেড্রস এর অধীনে WHO করোনা ভাইরাস খুবই ভালো কাজ করছে। বিভিন্ন দেশকে সাহায্য করতে মিলিয়ন মিলিয়ন সরঞ্জামাদি পাঠানো হচ্ছে, বিভিন্ন দেশে প্রশিক্ষন দেওয়া হচ্ছে এবং বিশ্বব্যাপী গাইডলাইন পরিচালনা করা হচ্ছে। WHO আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য সেবার শক্তিমত্তার প্রতিক হিসেবে কাজ করছে।”

এই বছরের জানুয়ারির ৩১ তারিখে WHO বিভিন্ন দেশকে উপদেশ দেয় তাদের বর্ডারগুলো খোলা রাখতে মহামারীর মধ্যেও, যদিও এটি বলে দেয় যে প্রত্যেকটি দেশেরই অধিকার আছে তার জনগণকে বাঁচানোর জন্য যথাযত পদক্ষেপ নেওয়ার। ওই একই দিন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চীনের উপর ভ্রমন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।”

মার্কিন রক্ষণশীল নেতারা WHO এর সমালোচনা করে বলে, এই বিশ্বব্যাপী মহামারীর সময়ে WHO চীনের দেওয়া ভুল তথ্যের উপরে নির্ভর করে আছে।”

গত সপ্তাহে রিপাবলিকান সিনেটর মার্কো রুবিও টেড্রোস এর পদত্যাগ দাবী করে বলে, “সে বেইজিং কে প্রশ্রয় দিয়েছে WHO কে ভুল তথ্য দিয়ে বিশ্ববাসীকে ভুল পথে নিয়ে যাওয়ার।”

leave a reply