মঙ্গলবার বাজারে লক্ষ্য রাখার মতো ৫ টি বিষয় | ৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০

মঙ্গলবার বাজারে লক্ষ্য রাখার মতো ৫ টি বিষয় | ৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ মঙ্গলবার বাজারে লক্ষ্য রাখার মতো ৫ টি বিষয় | ৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০

MarketDeal24.Com – ৮ই সেপ্টেম্বর, মঙ্গলবার বিনিয়োগকারীদের জন্য বাজারে লক্ষ্য রাখার মতো ৫ টি বিষয়।

১. প্রযুক্তি শেয়ারের বিক্রি

মার্কিন প্রযুক্তি খাতের শেয়ার তাদের সাম্প্রতিক পতনের সময়সীমাকে আরো প্রসারিত করার জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

পূর্বাঞ্চলীয় সময় সকাল ৬ টা ২০ মিনিটে Nasdaq 100 futures 2.2% হ্রাস পেয়েছে। Dow futures অপরিবর্তীত এবং S&P 500 futures 0.7% হ্রাস পেয়েছে।

Apple (NASDAQ:AAPL) এর শেয়ার আরো 3.8% হ্রাস পেয়েছে। অন্যদিকে Facebook (NASDAQ:FB), Amazon (NASDAQ:AMZN) এবং Microsoft (NASDAQ:MSFT) এর শেয়ার প্রায় 3% হ্রাস পেয়েছে।

Forexmart

২. ট্রাম্প পুনরায় নির্বাচিত হলে চীনকে ‘বিশাল শুল্ক’ দেওয়ার হুমকি দিয়েছে

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নভেম্বরে পুনর্নির্বাচিত হলে চীনের উপর বিশাল শুল্ক আরোপ করার ঘোষণা দিয়েছেন।

ট্রাম্প তার ২০১৬ সালের নির্বাচনী প্রচারকে পুনঃপ্রকাশ করে বলেন, “আমরা সর্বকালের জন্য চীনের উপর আমাদের নির্ভরতাকে শেষ করব।” সেখানেই তিনি হুমকি দিয়ে বলেছিলেন যে, চীন থেকে আমদানির উপর “প্রচুর শুল্ক” চাপানো হবে।

29 মিলিয়ন আমেরিকান বেকারত্বের সুবিধার দাবি করছে। এমন সময়ে আমদানি আরো ব্যয়বহুল করার ঝুঁকি নিতে স্পষ্টত অনিচ্ছুক যুক্তরাষ্ট্রের পণ্য কিনতে চীনের স্পষ্ট ব্যর্থতা থাকা সত্ত্বেও ট্রাম্প এই বছর তাই নতুন করে শুল্ক আরোপ করা থেকে বিরত রয়েছেন।

৩. শেয়ার বিক্রয়ে পিছিয়ে Tesla 

শুক্রবার Tesla $5 বিলিয়ন ডলার মূল্যমানের শেয়ার বিক্রি সম্পন্ন করার কথা বলার পরে এটির শেয়ার মূল্য 11% কমেছে।

এছাড়া S&P 500 index এ যুক্ত হতে না পাড়ার খবর প্রচারের পরেও এটি কিছুটা চাপের মধ্যে রয়েছে।

এখন যদি Tesla তার বর্তমান স্তরে দিন শুরু করে তাহলে এটি মাসের শুরুর তুলনায় প্রায় 25% নীচে থাকবে।

৪. ব্রেক্সিট ঝুঁকিতে হ্রাস পেল স্টারলিং

ডলারের বিপরীতে পাউন্ড এক মাসের সর্বনিম্ন অবস্থায় চলে গেছে এবং ইউরোর বিপরীতে বিগত তিন সপ্তাহের সর্বনিম্ন অবস্থায়।

সোমবার ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন আভাস দিয়ে বলেন তিনি গত বছর স্বাক্ষরিত হওয়া চুক্তি মানতে তেমন একটা আগ্রহী নন। যার মেয়াদ শেষ হবে ৩১শে ডিসেম্বর।

U.K. stocks এর পতনের হার ছিল ইউরোপের চেয়ে কম, যদিও স্টারলিংয়ের মূল্যমান বেড়েছে এবং ব্রিটেনের তালিকাভুক্ত শেয়ারের বৈদেশিক আয় বৃদ্ধি পেয়েছে। FTSE 100 হ্রাস পেয়েছে 0.3%।

৫. তেলের মূল্য তিন মাসের সর্বনিম্ন অবস্থানে

Crude oil এর মূল্যমান বিগত ১০ সপ্তাহের সর্বনিম্ন অবস্থানে রয়েছে। শেষের দিকে চলে এসেছে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রাইভিং সিজন। তেলের বাজারে যুক্তরাষ্ট্র এখন চাহিদা যোগানের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখতে ব্যস্ত।

সোমবার তেলের মূল্য এমনিতেই দুর্বল অবস্থায় চলে যায় কারণ সৌদি আরব অফিশিয়াল সেলিং প্রাইস কমিয়ে এনেছে এশিয়ান ভোক্তাদের জন্য। এতে করে চীনের খনিজ তেল আমদানিকারকের সাথে একটি নতুন দ্বন্দ্ব শুরু হতে পারে। স্বাধীন তেল পরিশোধনকারীরা এক্ষেত্রে মূল্য কমার সুযোগ গ্রহণ করবে।

পূর্বাঞ্চলীয় সময়ে ভোর সাড়ে ছয়টায়, U.S. crude futures 3.6% হ্রাস পেয়ে $38.33 এ অবস্থান করে, এর আগে পতনের পর যা $38.18 পর্যন্ত নেমেছিল। Brent futures 1.6% হ্রাস পেয়ে প্রতি ব্যারেলের মূল্য দাঁড়িয়েছে $41.33।

আমেরিকান পেট্রোলিয়াম ইন্সটিটিউটের সাপ্তাহিক রিপোর্ট প্রকাশে একের পর এক দীর্ঘসূত্রিতাই শুধু সৃষ্টি হচ্ছে।

leave a reply