ADVERTISING

সংবাদ অনুযায়ী ট্রেড করার সময় সাবধান থাকুন

সংবাদ অনুযায়ী ট্রেড করার সময় সাবধান থাকুন সংবাদ অনুযায়ী ট্রেড করার সময় সাবধান থাকুন

সংবাদ এমন একটি জিনিস যা ফরেক্স মার্কেট বা মুদ্রা বাজারে অংশগ্রহণকারী সকল পক্ষই বিবেচনায় নেয় । এই বিবেচনার ফলেই গড়ে উঠে তাদের নিজেদের ট্রেডিং করা বা না করা নিয়ে সিদ্ধান্ত । তাই বলা হয় যে, সংবাদ ফরেক্স বাজারকে গতি দেয় । কিন্তু এই সংবাদ শুনে ট্রেড করার কিছু নেতিবাচক দিকও আছে। নিম্নে সেগুলো আলোচনা করা হলো ।

১. Spread বৃদ্ধি পাওয়া

যেহেতু একটি সংবাদ প্রচার হওয়ার সময় ফরেক্স বাজার খুবেই অস্থির বা volatile থাকে তাই এই অবস্থার সুযোগ নিয়ে Forex Broker রা তাদের spread এর পরিমান বৃদ্ধি করে থাকে। যা আপনার trading cost বা লেনদেন সম্পর্কিত আনুষঙ্গিক ব্যয় বাড়িয়ে দিবে । আবার, আপনি এই ধরণের পরিস্থিতিতে ‘locked আউট ‘ ও হয়ে যেতে পারেন । অর্থাৎ, আপনার কম্পিউটার স্ক্রিনে হয়তো দেখাচ্ছে যে আপনার লেনদেনটি হয়ে গিয়েছে কিন্তু তা হয়তো আপনার ব্রোকারের database এ দেরিতে পৌঁছাবে । এটি নিশ্চই আপনার জন্যে ক্ষতিকর কারণ এই অবস্থায় আপনি আপনার লেনদেনে কোনো ধরণের সমন্বয় করতে পারবেন না ।

২. মূল্যের পিছলিয়ে পড়া

এই ধরণের অবস্থা তখন হয় যখন আপনি হয়তো একটি নির্দিষ্ট মূল্যে বাজারে entry নিতে চাচ্ছেন কিন্তু আসলে entry নেয়ার সময়ে আপনি দেখলেন যে আপনার নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে অন্য মূল্যে আপনাকে entry নিতে হলো । এঅবস্থায় একটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে যে, বোরো খবরের দ্বারা বাজার গতি পায় তা ঠিক কিন্তু সেই গতিমুখ আবার একটু পরে তার দিক পরিবর্তন করতে পারে ।

কোন সংবাদের উপর ভিত্তি করে আমি ট্রেড করবো

সংবাদের উপর ভিত্তি করে ট্রেড করার কৌশল নির্ধারণের পূর্বে এই বিষয়টা জানা জরুরি যে একজন ট্রেডার কোন সংবাদের উপরে ভিত্তি করে লেনদেন করবেন । এই কথা মনে রাখতে হবে যে, সংবাদের উপর ভিত্তি করে ট্রেড এই কারণে করা হয় যে একটি গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ ফরেক্স বাজারকে গতি প্রদান করে। তাই একজন ত্রদেরকে সেই সকল সংবাদের উপর ভিত্তি করে ট্রেড করা উচিত যে সংবাদের ফরেক্স বাজারকে গতি দেয়ার সম্ভাবনা আছে ।  যদিও বাজার প্রত্যেকটি সংবাদের উপর ভিত্তি করে প্রতিক্রিয়া প্রদর্শন করে কিন্তু ট্রেডারদের নিকট সবচেয়ে আগ্রহের সংবাদ হলো সেইগুলো যেগুলো আসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে । এর কারণ হলো যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি পৃথিবীর সর্ব বৃহৎ অর্থনীতি এবং যুক্তরাষ্ট্রের মুদ্রা ডলার হলো বিশ্বের সবচেয়ে বড় রিসার্ভ কারেন্সী।

Forexmart

এর অর্থ হলো যে, বিশ্বে হওয়া আন্তর্জাতিক লেনদেনের 90% ভাগেই হয় মার্কিন ডলারে। ফলে যুক্তরাষ্ট্রের যেকোনো সংবাদ খুবই গুরুত্বপূর্ণ ।

নিম্নে একটি বার চার্টে যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ এবং এইগুলোর volatility তৈরির শক্তি দেখানো হলো ।

স্টক মার্কেট

কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক কর্তৃক মুদ্রাস্ফীতিজনিত খবরের পাশাপাশি একজন ট্রেডারকে বিশ্ব রাজনীতির সংবাদের দিকেও দৃষ্টি রাখতে হবে । যদিও এই সকল সংবাদ সরাসরি তেমন কোনো প্রভাব ফেলে না তারপরেও এইগুলো জানা গুরুত্বপূর্ণ । আরেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যপার হলো স্টক মার্কেট বা পুঁজি বাজারের খোঁজ খবর রাখা । এর কারণ হলো অনেক সময়ে পুঁজিবাজারের কোনো গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ফরেক্স বাজারে পরিবর্তনের পূর্বসূত্র হয়ে দাঁড়ায় ।

কোন ধরণের সংবাদের উপর ভিত্তি করে ট্রেড করবেন তা জানার পরে এখন কোন ধরণের কারেন্সী পেয়ারের উপর বিনিয়োগ করবেন তা জানা জরুরি । যেহেতু, বড় খবর বাজারে অস্থিরতা এনে থাকে তাই এমন কারেন্সী পেয়ারে ট্রেড করা উচিত যার তারল্যের পরিমান অন্য কারেন্সী পেয়ারের তারল্যের তুলনায় বেশি ।

তরল কারেন্সী পেয়ারে বিনিয়োগ করলে এই নিশ্চয়তা থাকে যে, লেনদেন সম্পর্কে আপনার দেয়া নির্দেশ তাৎক্ষণিক বাস্তবায়িত হবে । নিম্নে তরল কারেন্সী পেয়ারের একটি তালিকা দেয়া হলো ।

১. EUR/USD

২. GBP/USD

৩. USD/JPY

৪. USD/CHF

৫. USD/CAD

৬. AUD/USD

উপরের তালিকায় লক্ষ্য করে দেখুন যে সবকটি কারেন্সী পেয়ারেই major currency pair । কারণ Major Currency Pair এর তারল্য বেশি থাকে এবং এই ধরণের পেয়ারে আবার spread ও বেশি হয়।

সংবাদ অনুযায়ী ট্রেড করার দুইটি পদ্ধতি

সংবাদ অনুযায়ী ট্রেড করার দুইটি পদ্ধতি আছে। যেমন:

১. Directional Bias থেকে ট্রেড করা;

২. Non -Directional Bias থেকে ট্রেড করা।

Directional Bias থেকে ট্রেড করা

Directional Bias থাকার অর্থ হলো যে, আপনি হয়তো ঠিক করে রেখেছেন যে, প্রকাশিতব্য সংবাদ এর প্রভাবে বাজার একটি নির্দিষ্ট দিকে তার গতি পাল্টাবে। বাজারের একটি নির্দিষ্ট দিকে গতিমুখ পাল্টানোর মানসিকতা নিতে ট্রেড করতে হলে এই জিনিসটি প্রথমে নির্ধারিত করতে হবে যে সংবাদের মধ্যে এমন কি আছে যা বাজারকে তার গতিমুখ পরিবর্তন করতে অনুঘটক হিসেবে কাজ করবে ।

ঐক্যমত বনাম আসল নাম্বার

কোনো গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়ার মাস বা সপ্তাহখানেক পূর্ব থেকে গণমাধ্যমগুলোতে এই সম্পর্কে বিভিন্ন বিশ্লেষকগণ তাদের বিশ্লেষণ চিত্র তুলে ধরতে থাকেন । এক্ষেত্রে একেক জনের বিশ্লেষণের ফলে প্রাপ্ত সংখ্যা হয় একেক ধরণের । তারপরেও একটি নির্দিষ্ট মাপকাঠিমূলক সংখ্যার উপরে বেশিরভাগ বিশ্লেষক ঐক্যমতে পৌঁছান । এই ধরণের ঐক্যমত ভিত্তিক সংখ্যাকে বলে Consensus Number । আর যখন সেই সংবাদ বা প্রতিবেদনটি বাস্তবিক অর্থে প্রকাশিত হয়ে যায় এবং সেটাতে যে সংখ্যা থাকে তাকে বলে Actual Number ।

Non -Directional Bias থেকে ট্রেড করা

Directional Bias এর পুরো উল্টোটা হলো Non -Directional Bias | এই পদ্ধতিতে একজন ট্রেডার প্রকাশিতব্য সংবাদের প্রভাবে বাজারের কোনো নির্দিষ্ট গতির দিকে লক্ষ্য না রেখে সম্পূর্ণ দিক নিরপেক্ষ থেকে ট্রেড করার সিদ্ধান্ত নেন । এই পদ্ধতিতে একজন ট্রেডারের মানসিকতা থাকে যে, যখন বড় সংবাদটি আসবে তখন তার উপর ভিত্তি করে বাজার অবশ্যই একটি দিকে ধাবিত হবে । কিন্তু তারা পূর্বে থেকে সেই দিকটির ব্যপারে অনুমান না করে বরং, সংবাদ আসার সাথে সাথে বাজারের অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নেয়ার মানসিকতায় বাজারে নামেন ।

Directional Bias নিয়ে একটি সংবাদের মাধ্যমে যেভাবে ট্রেড করবেন

এইবার একটি বাস্তব উদাহরণের মাধ্যমে দেখাযাক যে, একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের আলোকে Directional Bias নিয়ে কিভাবে ট্রেড করতে হয়। নিম্নে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেকারত্বের হার সম্পর্কিত একটি প্রতিবেদনের প্রভাব নিয়ে আলোচনা করা হলো।

বাস্তব চিত্র: ধরুন যুক্তরাষ্ট্রের বেকারত্ব সম্পর্কিত প্রতিবেদনটি কর্মসংস্থানের অবস্থার উন্নতির ইঙ্গিত দিচ্ছে কিন্তু বাস্তবে US dollar দুর্বল হচ্ছে।

পূর্বে আমরা আলোচনা করতে গিয়ে উদাহরণে বলেছিলাম যে প্রত্যাশার সাথে কর্মসংস্থান সম্পর্কিত প্রতিবেদনটি সঙ্গতিপূর্ণ হলে বাজারের অবস্থা কি হবে । মনে করুন যুক্তরাষ্ট্রে বেকারত্বের হার কমেছে যেটি একটি ভালো সংবাদ। কিন্তু তার পরেও USD ফরেক্স বাজারে দুর্বল হচ্ছে।এই উদাহরণে আমরা জানবো এর কারণ।

এই অবস্থার কিছু কারণ নিম্নে আলোচনা করা হলো।

কারণ ১: সামগ্রিক অর্থনীতির চিত্র এখনো ভালো নয়।

এর প্রথম কারণ এই হতে পারে যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সামগ্রিক অর্থনৈতিক চিত্র বা দীর্ঘমেয়াদে অর্থনীতির সম্ভাবনা ভালো নয় । এটি ভবিষ্যতে আরো খারাপের দিকে যাওয়ার আশংকা আছে।এখানে মনে রাখতে হবে যে, এমন অনেক মৌলিক জিনিস আছে যা একটি অর্থনীতির চালিকা শক্তির মূল অনুঘটক হিসেবে কাজ করে।তাই যদিও প্রতিবেদনটিতে দেখাচ্ছে যে কর্মসংস্থানের নতুন সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে এবং বেকারত্বের হার কমেছে কিন্তু ডলার সম্পর্কে বড় ট্রেডারদের মনোভাব পরিবর্তন করতে তা হয়তো যথেষ্ট নয়।

কারণ ২: কর্মসংস্থান সম্পর্কে প্রকাশিত ইতিবাচক অবস্থার ইঙ্গিত হয়তো ক্ষণস্থায়ী।

সাধারণত Thankgiving দিবসের পরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠানগুলো আসন্ন Chirstmas এ ক্রেতাদের ভিড় সামলানোর জন্যে বেশি পরিমানে লোক নিয়োগ করে থাকে। এবং এই কর্মসংস্থানগুলো হয় স্বল্পমেয়াদি । তাই বেকারত্বের হারের হ্রাস পাওয়াটা হয়তো স্বল্পমেয়াদি যা দীর্ঘমেয়াদে মার্কিন অর্থনীতিকে ইতিবাচকভাবে প্রভাবিত করবে না।তাই এরকম অবস্থায় মনে রাখতে হবে যে, যেকোনো তথ্যের আলোকে তড়িৎ সিদ্ধান্ত না নিয়ে বরং কিছু সময় নিয়ে বৃহৎ অর্থনৈতিক চিত্র দেখে বিচার করা উচিত ।

leave a reply