ক্রিপ্টো-কারেন্সী এবং স্টক মার্কেট দুনিয়ায় কি অপেক্ষা করছে ২০১৭ তে?

ক্রিপ্টো-কারেন্সী এবং স্টক মার্কেট দুনিয়ায় কি অপেক্ষা করছে ২০১৭ তে?

২০১৭ তে ক্রিপ্টো-কারেন্সী  এবং শেয়ার ও স্টক বাজার অনন্য  সময় পার করেছে।  ২০১৮ যতই এগিয়ে এসেছে, ততই সবার মধ্যে  সামনের দিনগুলোতে কি কঠিন সময় আছে এবং এর সমাধান-ই বা কি হবে এ নিয়ে ভাবনা চলছে।

ক্রিপ্টো-যুগের কি সমাপ্তি এসে গেল?

 

অতীতেও স্টক ও শেয়ার দুনিয়ায় কিছু চাঞ্চল্যকর ধসের ঘটনা দেখা গেছে, যেমন-১৯৯০ এর ডট কম এর ঘটনা কিংবা ২০০৮ এ ইউএস হাউজিং এর ঘটনা।  এত শংকা থাকার পরেও এবং এর উত্থানপতন  এর পরেও  ই-কারেন্সী সব কিছুকে বুড়ো আংগুল  দেখিয়ে এগিয়ে চলছেই।

ক্রিপ্টো-কারেন্সী
ক্রিপ্টো-কারেন্সী

পুরো পৃথিবী  এর চোখ এখন ই-কারেন্সীকে  গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ  করে, যাচাই করে এবং ন্যূনতম সন্দেহ  হলেই  বিধি-নিষেধ  আরোপ করে।  পিপলস ব্যাংক অব চায়না সোমবার আইসিও নিয়ে তাদের তদন্ত প্রতিবেদনে অনিয়ম ও অসামঞ্জস্য  পেয়েছে বলে জানিয়ে একে বন্ধ ঘোষণা করে এবং বিনিয়োগকারীদের  অর্থ  ফেরতের নির্দেশ  দেয়।

 

ডিজিটাল কারেন্সী  এর পুরোধা, বিটকয়েন , ২০১৭ এর প্রথম ৬ মাসে ১০০০$ বেড়ে ৫০০০$ এ গেলেও এখন কমে গিয়ে ৪১৯২$ মাত্র।  যদিও এই ক্ষতি টা আগের উত্থান কে ম্লান করতে পারেনি।

লাগামহীন শেয়ার

 

ইউকে, ইউএস, ইউরোপ,জাপানের সেন্ট্রাল ব্যাংকগুলোর পরিমাণগত  সংকোচনের মুদ্রানীতি  ঋণ প্রদান সহজ  হয়েছে।

ফলে ,  গবেষণা এবং  উন্নয়নে ব্যয় না বাড়িয়ে এই বাড়তি  সুবিধা  শেয়ার হোল্ডারদের পুনঃক্রয় এ সাহায্য করছে।  ইন্টারেস্ট  বিক্রয়ের পরে অর্থ ফেরতের চেয়ে  ঋণ ভিত্তিক লেনদেন সহজ হওয়ায় সুদের হার সর্বনিম্ন পর্যায়ে  এসে ঠেকেছে।

 

ঋণের পরিমাণে বাড়া টা ইকুইটি  মূল্যকে কমিউএ দিয়েছে।  যার ফলে, অনেকেই ইন্টারেস্ট  রেট বাড়লে সমন্বয়ে হিমশিম খাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আরো জানতে পূর্ববর্তী পেইজে ক্লিক করুন- বিটকয়েন কি নিরাপদ?

  

অনলাইনে লেনদেন করতে এই অ্যাকাউন্ট এ ক্লিক করুন- Niteller

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *