Brexit- কি হতে পারে ভবিষ্যতে ?

1
354 views
Brexit- কি হতে পারে ভবিষ্যতে ?
Brexit- কি হতে পারে ভবিষ্যতে ?

ইউরোপিয়ান নির্বাচনে যুক্তরাজ্যের প্রধান দুইটি রাজনৈতিক দল কনজারভেটিভ পার্টি ও লেবার পার্টির বিপুল ব্যবধানে পরাজয় এর মাধ্যমে বুঝা যাচ্ছে যুক্তরাজ্যের রাজনৈতিক মেরুকরণ এর অবস্থা।দুইটি দলই ব্রেক্সিট প্রতিষ্ঠা করার ব্যাপারে নিচু মনোভাব রাখে অন্যদিকে বাকিরা যেমন লিব ডেমস এবং কট্টর ব্রেক্সিটপন্থী দলগুলো যারা সাবেক ব্রেক্সিট এর পক্ষের নেতাদের নিয়ে দল গঠন করেছে তারা বেশি ভোট পেয়েছে।এর মাধ্যমে পরিষ্কার ভাবে বুঝা যাচ্ছে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ছাড়ার ব্যাপারে গণভোটের তিন বছর পার হয়ে যাওয়ার পরেও ব্রেক্সিট এর ব্যাপারে কোনো অগ্রগতি না হওয়ায় দেশের জনগণ এর রাগ ও ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে এই নির্বাচনে।

বিরোধীদলীয় নেতা করবিন চাপের মুখে :

কনজারভেটিভ পার্টির নতুন প্রধান হয়তো কট্টর ব্রেক্সিটপন্থী হবে কিন্তু এটাও পরিস্থিতি সামাল দিতে পারবে না মনে হচ্ছে কারণ থেরেসা মে যে অচলাবস্থা তৈরী করে দিয়ে গেছেন তা প্রায় অপূরণীয়।আর এটা কখনোই সম্ভব মনে হচ্ছে না যে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ব্রিটেন এর সাথে ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে কোনো আলোচনা করবে নতুন নেতা আসার পর।আর কনজারভেটিভ পার্টির মধ্যে বিরোধ এখনো চলছে, অন্যদিকে বিরোধীদলীয় নেতা করবিন ও চাপের মুখে আছে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে থাকার ব্যাপারে তার সিদ্ধান্ত স্পষ্ট করার জন্য।

এদিকে পার্লামেন্টে ইতিমধ্যে কট্টর ব্রেক্সিট এর বিপক্ষে ভোট পড়েছে কারণ বলা হচ্ছে “নো ডিল ব্রেক্সিট” এখন খুবই কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে একটি সাধারণ নির্বাচন ছাড়া।যাইহোক ,ইউরোপিয়ান নির্বাচনে যা দেখা গেলো, ব্রিটেনে যদি নতুন করে সাধারণ নির্বাচন দেওয়া হয় তাহলে কনজারভেটিভ পার্টি ও লেবার পার্টি এর অবস্থা খুবই ভয়াবহ হতে পারে যদি না তারা তাদের দৃষ্টিভঙ্গি না বদলায়। কনজারভেটিভ পার্টি মনে হয় না এরকম ঝুঁকি নিবে।

এখন দ্বিতীয় দফায় গণভোটই মনে হচ্ছে একমাত্র গ্রহণযোগ্য উপায়, যেটা কিনা ব্রেক্সিট এর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা পার্লামেন্ট থেকে নিয়ে জনগণের হাতে দিবে ।প্রকৃতপক্ষে ব্রেক্সিট এর ব্যাপারে অন্য কোনো উপায় না থাকা ও পার্লামেন্ট এর অক্ষমতার জন্য গণভোট ই একটা গ্রহণযোগ্য উপায় মনে হচ্ছে যদিও এর কিছু ঝুঁকি আছে যেমন এর ফলে নতুন করে স্কটল্যান্ড এর সদ্যারণ নির্বাচন দাবি উঠতে পারে।

রাজনীতিবিদদের ব্রেক্সিট নিয়ে কোনো অগ্রগতি না থাকায় ও ব্রেক্সিট প্রতিষ্ঠায় অনিশ্চয়তা দেখা দেওয়ায় GBP এর মূল্য হ্রাস পেয়েই যাচ্ছে।যদিও , দ্বিতীয় গণভোট এর সম্ভাবনা দেখা দেয় তাহলে GBP/USD কিছুটা লোকসান কমিয়ে আনতে পারবে ,সম্ভাব্য 1.30 এর উপরে যেতে পারবে অন্তত।যদিও মনে হচ্ছে না বাকিদলগুলো দ্বিতীয় গণভোটে জয়লাভ করতে পারবে কিন্তু অন্তত একটা সুযোগ আছে তাদের সামনে যেটা আগে ছিল না এবং এটাই GBP কে লাভের পথে ফিরিয়ে আনতে পারে।

সূত্র- investing.com

Facebook Comments

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.