ADVERTISING

Carry Trade কি? Forex Bangla Trading System

Carry Trade কি? Forex Bangla Trading System Carry Trade কি? Forex Bangla Trading System

Carry Trade কি? Forex Trading System:- আপনি কি জানেন যে, এমন একটি ট্রেডিং এর কৌশল আছে যা একটি কারেন্সী পেয়ারের মূল্য দীর্গ সময়ধরে একই থাকলেও আপনাকে এনে দিবে লাভজনক ট্রেড? হ্যা, এইরকম একটি কৌশল আছে এবং একটি অনেক ট্রেডাররা ব্যবহার করেন।এই কৌশলকে বলা হয় Carry TradeForex Bangla.

Carry Trade বলতে এমন এক কৌশলকে বুঝাই যেখানে একটি কম সুদ বিশিষ্ট আর্থিক instrument ধার নেয়া বা বিক্রি করা এবং সেই instrument এর মাধ্যমে একটি বেশি সুদের আর্থিক instrument ক্রয় করাকে বুঝায় ।

একদিকে যেখানে আপনি আপনার ধার করা instrument এর উপরে কম সুদ প্রদান করছেন আবার ঠিক অন্যদিকে, আপনি যে instrument ক্রয় করেছেন তার উপরে বেশি সুদ নিচ্ছেন। আর এই সুদের হারের মধ্যেকার পার্থক্যই হলো আপনার মুনাফা।

Carry Trade এর উদাহরণ:

ধরে নিন আপনি একটি ব্যাংকে গিয়ে 10,000 ডলার ঋণ নিলেন। এবং সেই ব্যাংকার সুদের হার হলো আপনার ঋণকৃত টাকার উপরে বাৎসরিক 1%। এখন ঐ ঋণ করা অর্থ দিয়ে আপনি কিছু বন্ড কিনলেন যেটা নাকি আপনাকে বছরে 5% হারে সুদ দিবে। এই অবস্থায় এই দুইটি instrument এর সুদের হারের পার্থক্য দাঁড়ালো (5% – 1%) বা 4%। এটিই আপনার মুনাফা।

Forexmart

এই 4% এর মুনাফা আপনাকার কাছে বেশি নাও মনে হতে পারে । কিন্তু spot ফরেক্স মার্কেটে বেশি পরিমানে leverage এবং দৈনিক সুদের পরিশোধ করে তুলবে এই কৌশলকে আকর্ষণীয়। স্পষ্ট ধারণার জন্যে বলা দরকার যে, যে একাউন্ট 20 X এর leverage আছে সেটাতে 4% এর সুদের হার হয়ে দাঁড়াবে 60%।

Leveraged Carry Trade এর উদাহরণ:

ধরুন আপনি একটি ব্যাঙ্ক থেকে 1% বাৎসরিক সুদে 1,000,000 ডলার ঋণ নিলেন।এবং এই ঋণ নেয়ার জন্যে আপনাকে সেই ব্যাংকে 10,000 ডলার জামানত হিসেবে রাখতে হলো। যেটি আপনি ঋণ পরিশোধ করার পরে ব্যাংকার নিকট থেকে পেয়ে যাবেন ।

ব্যাংকের নিকট থেকে এই ঋণ নিয়ে আপনি আর এক ব্যাংকে গেলেন এবং সেইখানে আপনার ঋণ করা 1,000,000 ডলারের পুরোটাই একটি হিসেবে রাখলেন যেটা কিনা আপনাকে বছরে 5% হারে সুদ দিবে। বছর শেষে আপনি এই ব্যাঙ্ক থেকে পেলেন (1,000,000 X 5%) বা 50,000 ডলার । আপনি অন্য ব্যাঙ্ক কে দিলেন 10,000 ডলার । আপনার মুনাফা দাঁড়ালো (50,000 – 10,000) ডলার বা 40,000 ডলার বা পুরো 400%।

Currency Carry Trade কি?

ফরেক্স বাজারে মুদ্রা লেনদেন করা হয় পেয়ার বা জোড়ায়। একজন ট্রেডের যে currency position ক্রয় করেন তার উপরে তাকে সুদ দেয়া হয় আবার অন্যদিকে, যে currency position উনি বিক্রয় করবেন তার উপরে তাকে সুদ দিতে হয়।

যে জিনিসটি spot ফরেক্স বাজারকে আকর্ষণীয় করে তুলে তা হলো যে, এইখানে সুদের দৈনিক আদান প্রদান হয় এবং প্রত্যেকটি ট্রেডিং position দিনের শেষে বন্ধ হয়ে যায় । ব্রোকাররা পরেরদিন আবার সেই ট্রেডিং position কে খুলে এবং দুই মুদ্রার সুদের হারের পার্থককের উপরে ভিত্তি করে আপনার হিসাব তারা সমন্বয় করে । এক দিনের সুদ অন্যদিনে বহন করাকেই বলে carry বা rolling over| বেশি পরিমাণে Leverage থাকায় Carry Trade মানুষের নিকট spot ফরেক্সকে করে তুলেছে জনপ্রিয়।

ফরেক্স ট্রেডিং এ leverage হলো margin ভিত্তিক। অর্থাৎ, আপনাকে একটি নির্দিষ্ট পরিমানে অর্থ দিতে হবে এবং ঘাটতি পূরণ করার জন্যে বাকি অর্থ দিবে আপনার ব্রোকার । সাধারণত ব্রোকাররা 1% থেকে 2% leverage চায়।

Currency Carry Trade এর উদাহরণ:

ধরুন আপনার কাছে এখন 10,000 ডলার আছে । তা নিয়ে আপনি একটি ব্যাংকে গেলেন এবং ব্যাংকে একটি হিসাব খুলে 1% বাৎসরিক সুদের হারে তাতে আপনার অর্থ জমা দিলেন। কিন্তু পরোক্ষনে হিসাব করে আপনি দেখলেন যে বাৎসরিক 1% সুদ হয় 100 ডলার যা আপনার জন্যে যথেষ্ট নয়। তাই আপনি আপনার অর্থ নিয়ে সেই ব্যাঙ্ক থেকে বের হয়ে গেলেন। আপনার DEMO ফরেক্স ট্রেড করার পূর্ব অভিজ্ঞতা ছিলো আর সেই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে আপনি একটি আসল বা real একাউন্ট খুললেন এবং এতে আপনার 10,000 ডলার জমা করলেন। এখন আপনি এমন একটি কারেন্সী পেয়ার খুঁজে বের করলেন যেটি আপনাকে বছরে 5% এর হারে লাভ দিবে এবং আপনি 1,00,000 মূল্যের সেই পেয়ার ক্রয় করলেন।

যেহেতু আপনার ব্রোকার এই position ক্রয় করার জন্যে আপনার কাছ থেকে মাত্র 1% এর হারে জামানত চাচ্ছে এবং আপনাকে 1000 ডলার margin দিচ্ছে তাই এই অবস্থায় আপনার প্রাপ্ত leverage দাঁড়ায় (100:1)|

এখন আপনি 100,000 মূল্যের একটি কারেন্সী পেয়ারের মালিক যা কিনা আপনাকে বছরে 5% এর হারে মুনাফা দিবে। এখন দেখা যাক কি হবে যদি আপনি সারা বছর কিছু না করেন। এই ধরণের পরিস্থিতিতে নিম্নের তিনটি অবস্থার সৃষ্টি হতে পারে।

Currency Position

১. Currency Position তার মূল্য হারালো: যে কারেন্সী পেয়ার আপনি ক্রয় করেছেন তা নিজের মূল্য হারালো । যদি মূল্যের এই নিম্নগতি এতো বেশি হয় যে margin ছাড়া আপনার একাউন্ট এ আর কিছুই থাকলো না তাহলে পুরো Position টি বন্ধ হবে এবং অবশিষ্ট থাকবে শুধু margin 1000 ডলার।

২. বছরের শুরুর মতোই বছর শেষেও কারেন্সী পেয়ারের বিনিময়ের হার অপরিবর্তিত থাকলো: এই অবস্থায় আপনি কিছু হারাবেন না আবার কিছু অর্জনও করবেন না। তবে মুনাফা হিসেবে যা পাবেন তা হলো আপনার বিয়োগ করা 1,00,000 ডলার এর উপরে 5% হারে সুদ। অর্থাৎ, 5000 ডলার। যা 50% মুনাফা (মুনাফা গণনা করা হবে 10,000 ডলার এর উপরে)।

৩. Currency Position মূল্যমানে বৃদ্ধি পেলো: আপনার বিনিয়োগ করা কারেন্সী পেয়ার তার মূল্য মানে যদি বৃদ্ধি পায় তাহলে এই অবস্থায় আপনি আপনার অর্জিত মুনাফার পাশাপাশি নূন্যতম 5000 ডলার সুদ অবশ্যই পাবেন ।

যেহেতু এইখানে আপনার leverage হলো (100:1) তাই বছরে আপনার 10,000 ডলার বিনিয়োগের উপরে 50% পর্যন্ত অর্জন করার সম্ভাবনা আছে।

কখন Carry Trade কাজ করে এবং কখন তা করে না

Carry Trade তখনই কাজ করে যখন বিনিয়োগকারীরা ঝুঁকি অনুভব করে এবং বাজারে প্রচলিত বেশি লাভ প্রদানকারী পেয়ার ক্রয় এবং কম লাভ প্রদানকারী কারেন্সী পেয়ার বিক্রয় করার ব্যপারে আশাবাদী হয়। এই অবস্থায় বিনিয়োগকৃত মুদ্রার পিছনে বিদ্যমান অর্থনৈতিক অবস্থা নিকট ভবিষ্যতে তেমন আশাবাদ না দিলেও কারেন্সী ক্রয় করার ব্যপারে বিদ্যমান সম্ভাবনাকে হতে হবে ইতিবাচক।

তবে যদি একটি অর্থনীতির সম্ভাবনা নিকট ভবিষ্যতে ইতিবাচক মনে হয় তাহলে সেই দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক অবশ্যই মুদ্রাস্ফিতিকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্যে সুদের হার বৃদ্ধি করবে। এটি carry trade এর জন্যে ভালো কারণ সুদের উচ্চ হার এর অর্থ হলো দুইটি কারেন্সী পেয়ারের মধ্যে সুদের অধিক পার্থক্য।

Carry Trade কখন কাজ করেনা?

অন্যদিকে যখন একটি দেশের অর্থনীতির সম্ভাবনা স্বল্প মেয়াদে ইতিবাচক মনে হয়না তখন সাধারণত বিনিয়োগকারীরা সেই দেশের মুদ্রায় বিনিয়োগ করতে চায় না। বিশেষ করে যখন সেই দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নিকট ভবিষ্যতে সুদের হারে হ্রাস করার সম্ভাবনা থাকে। তাই সহজ ভাষায় বলা যায় যে, Carry Trade তখনই ভালো কাজ করে যখন বিনিয়োগকারীদের ঝুঁকি গ্রহণের প্রবণতা বেশি থাকে। Carry Trade তখন কাজ করেনা যখন বিনিয়োগকারীরা ঝুঁকি এড়াতে চায়।

একটি উদাহরণের মাধ্যমে বিষয়টিকে স্পষ্ট করা যায়

ধরুন একটি দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো নয়। অর্থনীতি হয়তো একটি মন্দার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। আপনার কি মনেহয় এই অবস্থায় একজন বিনিয়োগকারী তার হাতে যে অর্থ আছে তা দিয়ে কি করবে?

সেই বিনিয়োগকারী হয়তো তার অর্থ দিয়ে কম মুনাফা প্রদানকারী কিন্তু একটি নিরাপদ কারেন্সী পেয়ারের উপর বিনিয়োগ করবে। এই অবস্থায় এইটা বিবেচ্য নয় যে বিনিয়োগকৃত কারেন্সী পেয়ারটি কম মুনাফা দিচ্ছে। এই রকম মন্দার সময়ে বিনিয়োগকৃত জিনিসের নিরাপদ হওয়াটাই মুখ্য। কারণ মুনাফা যদি কমও হয় বিনিয়োগকৃত মূলধন কিন্তু নিরাপদে থাকবে। ফরেক্সের ভাষায় অর্থনৈতিক মন্দার সময়ে ঝুঁকি সম্পর্কে এই রকম এড়িয়ে যাওয়ার মনোভাবকেই বলা হয় Risk Aversion বা ঝুঁকি এড়িয়ে চলার প্রবণতা।

Carry Trade করার আবশ্যক জিনিশসমূহ এবং এর ঝুঁকি

Carry Trade করার জন্যে ভালো একটি কারেন্সী পেয়ার খুঁজে বের করার জন্যে দুইটি জিনিসের প্রয়োজন। যেমন:

১. সুদের হারের অধিক পার্থক্য খুঁজে বের করতে হবে;

২. এমন একটা কারেন্সী পেয়ার খুঁজে বের করুন যা সাম্প্রতিক সময়ে স্তিথিশীল ছিলো অথবা uptrend এ আছে যা কিনা বেশি মুনাফাদানকারী মুদ্রার দিকে ইতিবাচক। এর মাধ্যমে আপনি বেশি সময় ধরে ট্রেড এ থাকতে পারবেন।

এইবার একটি বাস্তবিক উদাহরণ দেখা যাক।

এটি AUD/JPY কারেন্সী পেয়ারের সাপ্তাহিক চার্ট। সাম্প্রতিক সময় পর্যন্ত জাপানের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক Bank of Japan, “Zero Interest Rate Policy” মেনে আসছে (বর্তমানে দেশটির সুদের হার হলো 0.10%)| অন্যদিকে, অস্ট্রেলিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক, Reserve Bank of Australia সেই দেশের অর্থনীতিতে বিদ্যমান সুদের হার বৃদ্ধি করে 4.50% করতে চাচ্ছে। ফলে অনেক বিনিয়োগকারীরা ছুটছে AUD/JPY পেয়ারের পিছুনে।

লক্ষ্য করুন, ২০০৯ সাল থেকে ২০১০ সালের প্রথম দিক পর্যন্ত AUD/JPY পেয়ারটি 55.50 থেকে 88.00 পিপ্স পর্যন্ত গিয়েছে। যা কিনা মোট 3250 পিপ্স।

Carry Trade এর ঝুঁকি

অধ্যায়ের প্রথমে যে কাল্পনিক উদাহরণ প্রদান করা হয়েছিল এতে নূন্যতম ঝুঁকি ছিলো 9000 ডলারের।একজন ট্রেডের যদি মুনাফা না করে বরং ক্ষতির সম্মুখীন হন তাহলে তার ক্ষতি 9000 ডলারে আসা মাত্রই ট্রেডিং বন্ধ হয়ে যাবে। শুনতে এটি অনেক ভালো লাগে তাইনা?

মনে রাখুন, উদাহরণে উপস্থাপিত সেই ট্রেডারটি হলেন একজন নবাগত বা অনভিজ্ঞ।তাই করার সময়ে আপনি আপনার ক্ষতির পরিমাণকে একটি সীমার মধ্যে আন্তে পারেন। যেমন আপনি যদি আপনার ক্ষতিকে 1000 ডলারে সীমাবদ্ধ করতে চান তাহলে আপনি আপনার Stop Order এ সেই সংখ্যাটি দিলে বাজারের অবস্থা যায় হোক না কেন আপনি ১০০০ ডলারের বেশি ক্ষতির শিকার হবেন না। এই অবস্থায় আপনি আপনার অবস্থানকে ধরে রেখে আপনার অর্জিত সুদকেও তিলেনিতে পারবেনর।

leave a reply