Correlation | কোরিলেশন কি ?

Correlation | কোরিলেশন কি ? Correlation | কোরিলেশন কি ?

Correlation কি ?

অর্থনীতি ও বিনিয়োগ শিল্পে Correlation এমন একটি পরিমাপের মাধ্যম যার মাধ্যমে দুইটা সিকিউরিটির মধ্যে কোনটা কোনটার সাথে সম্পর্কিত বা কোনটা পরিবর্তন হলে তার সাথে কোনটা পরিবর্তিত হবে তা নির্ণয় করা হয়। এডভান্স পোর্টফোলিও ম্যানেজম্যান্ট এ কোরিলেশন ব্যবহৃত হয় যা কিনা correlation coefficient হিসেবে পরিমাপ করা হয়, যার মান সবসময় -1.0 থেকে +1.0 এর মধ্যেই হবে।

Correlation এর ব্যাখ্যা

একটি ধনাত্মক correlation বলতে বুঝায় এর correlation coefficient অবশ্যই 1। এর মানে যদি একটি সিকিউরিটি উপরের দিকে বা নিচের দিকে পরিবর্তিত হয় তাহলে তাকে অনুসরণ করে একই দিকে পরিবর্তিত হবে।

একটি ঋণাত্মক কোরিলেশন বলতে বুঝায় যদি একটি সিকিউরিটি উপরের দিকে পরিবর্তিত হয় তাহলে অন্যটি নিচের দিকে পরিবর্তিত হবে, এরা সবসময় একে ওপরের বিপরীতে পরিবর্তিত হবে। আর কোরিলেশন জিরো বলতে বুঝায় কারো সাথে কারো কোনো সম্পর্কই নেই।

উদাহরণস্বরূপ, large-cap mutual funds এর Standard and Poor’s (S&P) 500 Index এর সাথে সর্বোচ্চ পর্যায়ের ধনাত্মক কোরিলেশন রয়েছে, প্রায় 1 এর কাছাকাছি। Small-cap stocks এর ও একই সূচকের সাথে ধনাত্মক কোরিলেশন আছে তবে অতো বেশি না, 0.8 এর কাছাকাছি।

Forexmart

যদিও,put option prices এবং তাদের তাদের নিচে অবস্থিত স্টক প্রাইসের মধ্যে ঋণাত্মক কোরিলেশন বিদ্যমান। যদি স্টক প্রাইস বৃদ্ধি পায় সেক্ষেত্রে put option prices হ্রাস পায়।

গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

  • Correlation এমন একটি জরিপ যার মাধ্যমে কোন দুইটি সিকিউরিটি একটি অপরটির পরিবর্তনের উপর নির্ভরশীল তা পরিমাপ করা হয়।
  • অর্থনৈতিক বাজারে, Correlation একটি স্টকের পরিবর্তন তার বেঞ্চমার্ক ইনডেক্সের পরিবর্তনের সাথে সম্পর্কিত নাকি সেটা বের করা যায়, যেমন Beta ।
  • Correlation সম্পর্ক নির্ণয় করে কিন্তু কি পরিমান পরিবর্তন হবে বা কি কারণে পরিবর্তন হবে সেটা বলতে পারে না।

Correlation এর উদাহরণ :

বিনোয়োগকারীরা, ট্রেডাররা এবং বিশেষজ্ঞরা কোরিলেশন পরিমাপ করাকে ও অনেক জরুরি মনে করেন যেহেতু এই জরিপের উপরে ঝুঁকি কমানো ও মুনাফা বৃদ্ধি নির্ভর করে। ফাইন্যান্সিয়াল স্প্রেডশিট এবং সফটওয়্যার দ্বারা অনেক দ্রুত কোরিলেশন বের করা যায়।

একটি উদাহরণ হিসেবে ধরে নেই, একজন বিশেষ্যজ্ঞের নিন্মে উল্লেখ্যিত দুইটি ডাটাসেট এর মধ্যকার correlation বের করতে হবে:

X: (41, 19, 23, 40, 55, 57, 33)

Y: (94, 60, 74, 71, 82, 76, 61)

কোরিলেশন বের করতে তিনটি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হয়। প্রথমে X এর সকল মান যোগ করে SUM(X), বের করতে হবে, যা এর সকল মান যোগ করে SUM(Y) বের করতে হবে এবং X এর প্রত্যেক মানকে তার সাথে সম্পর্কিত Y এর মানের সাথে গুন্ করে তাদের গুণফলগুলোকে যোগ করে SUM(X,Y) বের করতে হবে :

SUM(X) = (41 + 19 + 23 + 40 + 55 + 57 + 33) = 268

SUM(Y) = (94 + 60 + 74 + 71 + 82 + 76 + 61) = 518

SUM(X,Y) = (41 x 94) + (19 x 60) + (23 x 74) + ।।। (33 x 61) = 20,391

পরবর্তী পদক্ষেপে, X এর সকল মানকে স্কয়ার করতে হবে এবং তাদের সবাইকে যোগ করে SUM(x^2).বের করতে হবে, একই ভাবে Y এর সকম মানের ক্ষেত্রে SUM(y^2) বের করতে হবে:

SUM(X^2) = (41^2) + (19^2) + (23^2) + … (33^2) = 11,534

SUM(Y^2) = (94^2) + (60^2) + (74^2) + … (61^2) = 39,174

এখানে যেহেতু ৭টি মান রয়েছে তাহলে correlation coefficient এর মান বের করতে নিচের সূত্রটি ব্যবহার করতে হবে :

এই উদাহরণে, correlation এর মান হবে :

r = (7 x 20,391 – (268 x 518) / SquareRoot((7 x 11,534 – 268^2) x (7 x 39,174 – 518^2)) = 3,913 / 7,248.4 = 0.54

Margin Level | মার্জিন লেভেল কী ?

leave a reply