EUR/USD: সাপ্তাহিক টেকনিক্যাল এনালাইসিস

EUR/USD: সাপ্তাহিক টেকনিক্যাল এনালাইসিস EUR/USD: সাপ্তাহিক টেকনিক্যাল এনালাইসিস

সাপ্তাহিক লাভ/লস: +0.07%

সাপ্তাহিক ক্লোজ: 1.1783

EUR/USD সাপ্তাহিক টাইমফ্রেম:

গত সপ্তাহে ২৭ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ে যাওয়ার পরে সম্প্রতি EUR/USD পেয়ারটি আগের সপ্তাহের সর্বোচ্চ 1.1909 এর নীচে স্থিতিশীল অবস্থায় রয়েছে।

গত ছয় সপ্তাহে EUR/USD পেয়ারটি 1.1183 থেকে 1.1916 তে পৌঁছেছে। এই সময়ের মধ্যে পেয়ারটি সর্বোচ্চ 1.2555 থেকে নেওয়া ট্রেন্ড লাইন রেসিস্টেন্স, ২০১৯ সালের ওপেনিং লেভেল 1.1445 এবং Quasimodo রেসিস্টেন্স 1.1733 কে ব্রেক করেছে। সম্প্রতি এগুলা সব সাপোর্ট হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে।

Forexmart

সর্বোচ্চ পর্যায়ে প্রাইস ধরে রাখতে না পারলেও বড় টাইম ফ্রেমের ট্রেডাররা এখনো ২০১৮ সালের ওপেনিং লেভেল 1.2004 তে প্রাইস যাওয়ার সম্ভাবনা দেখছে সামনের সপ্তাহগুলোতে। 1.1733 যদি সাপোর্ট হিসেবে ব্রেক হয় তাহলে পরবর্তী সম্ভাব্য সাপোর্ট হবে ২০১৯ সালের ওপেনিং লেভেল 1.1445।

ডেইলি টাইমফ্রেম:

ডেইলি টাইম ফ্রেমের প্রাইস এর পরিবর্তন এর দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যায় যে সম্প্রতি সাপ্তাহিক সাপোর্ট 1.1733 তে মূল্য পরীক্ষিত হয়েছে।

এই সপ্তাহে ডেইলি চার্টে রেসিস্তেন্স হিসেবে রয়েছে 1.1940, যা ব্রেক করলে ২০১৮ সালের ওপেনিং লেভেল 1.2004 তে প্রাইস যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

1.1733 এর নীচে প্রাইস গেলে ডেইলি সাপোর্ট 1.1594 সবার নজর কাড়তে পারে, যা কিনা সর্বোচ্চ 1.1147 থেকে নেওয়া রেসিস্টেন্স (বর্তমানে সাপোর্ট) এর সাথে জড়িত।

চার ঘন্টার টাইমফ্রেম:

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শ্রম পরিসংখ্যান ব্যুরো এর রিপোর্ট অনুসারে জুলাই মাসে দেশটির NFP ১.৮ মিলিয়ন বৃদ্ধি পেয়েছে। জুনে প্রায় ৪.৭৯১ মিলিয়ন বৃদ্ধি পেয়েছিল।

২৭ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন 92.52 তে নামার পরে মার্কিন ডলার ইনডেক্স আবারো 93.00 এর উপরে উঠে আসতে সক্ষম হয়েছে। বৃহস্পতিবারে EUR/USD পেয়ারটি 1.19 থেকে নেমে যায় এবং শুক্রবারে 1.18 এর দিকে ধাবিত হয় ও সর্বনিম্ন 1.1254 থেকে নেওয়া ট্রেন্ড লাইন সাপোর্ট এর দিকে সবার নজর নির্ধারিত করে, যা কিনা উপরে উল্লেখিত সাপোর্ট 1.1733 এর কাছে অবস্থিত।

বিবেচনার জায়গাগুলো:

সর্বোচ্চ 1.2555 থেকে নেওয়া সাপ্তাহিক ট্রেন্ড লাইন রেসিস্টেন্স, এবং মার্চ ৯ এর সর্বোচ্চ 1.1495 কে ব্রেক করলে লং টার্ম ট্রেন্ড পরিবর্তন হতে পারে।

এই সপ্তাহে সাপ্তাহিক সাপোর্ট 1.1733 অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বায়ারদের জন্য যেহেতু এটি চার ঘন্টার ট্রেন্ড লাইন সাপোর্ট এর সাথেই অবস্থিত। এই লেভেল থেকে প্রাইস আবারো 1.18 এর উপরে উঠে 1.19 তে পৌছাতে পারে।

Trading Idea | ট্রেডিংয়ে আইডিয়া শেয়ারের গুরুত্ব

৫ Comments

  • মার্কিন ডলার নিম্নমুখী; প্রণোদনা পদক্ষেপ নিয়ে জটিলতা অব্যাহত
    আগ ১০, ২০২০
  • GBP/USD: সাপ্তাহিক টেকনিক্যাল এনালাইসিস
    আগ ১০, ২০২০
  • মার্কিন ডলার নিম্নমুখী; প্রণোদনা পদক্ষেপ নিয়ে জটিলতা অব্যাহত
    আগ ১১, ২০২০
  • দিনের শুরুতে বাংলাদেশ শেয়ার বাজারে ঊর্ধ্বমুখী অবস্থা বিরাজমান
    আগ ২৩, ২০২০
  • বিশ্ব অর্থনীতি: চীনের GDP এর তথ্য প্রকাশের অপেক্ষায়
    আগ ২৪, ২০২০

leave a reply