ADVERTISING

FOREX – সাপ্তাহিক প্রেক্ষাপট: সেপ্টেম্বর ৯ – ১৩

FOREX - সাপ্তাহিক প্রেক্ষাপট: সেপ্টেম্বর ৯ - ১৩ FOREX - সাপ্তাহিক প্রেক্ষাপট: সেপ্টেম্বর ৯ - ১৩

MarketDeal24.Com – এই সপ্তাহে বিনিয়োগকারীদের দৃষ্টি থাকবে ইউরোপিয়ান সেন্ট্রাল ব্যাঙ্কের মুদ্রানীতি সম্পর্কিত নীতিনির্ধারণী বৈঠকের দিকে, তাছাড়া, ব্রেক্সিট সম্পর্কিত যেকোনো ধরণের সংবাদ, অন্যদিকে, বিশ্বের দুই বৃহৎ অর্থনীতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের মধ্যে গত প্রায় এক বছর ধরে চলমান থাকা বাণিজ্য যুদ্ধের দিকে। যা সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্ব অর্থনীতির প্রবৃদ্ধির বিষয়ে সৃষ্টি করেছে নেতিবাচক ধারণার।

তাছাড়া, গত আগস্ট মাসে মার্কিন অর্থনীতি দ্বারা প্রত্যাশার চেয়ে কম হারে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি সম্পর্কিত প্রতিবেদন কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের দ্বারা সুদের হারের মধ্যে কমতি আনার মতের নিকট পৌছিয়ে দেয়। তবুও মার্কিন মুদ্রা ডলার এবং তার ইনডেক্স, গত এক সপ্তাহের চেয়ে সামান্য হারে উচ্চতায় অবস্থান করছে।

তবে, অর্থনীতির প্রতি সম্ভাবনাময় এই ধারণার উপরে হালকা আঘাত আনেন দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান জেরোমি পাওয়েল এই বলে যে, মার্কিন-চীন চলমান বাণিজ্য যুদ্ধ স্মরণকালের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বৃহৎ অর্থনৈতিক সম্প্রসারণের ধারাবাহিকতাকে তার পথ থেকে অনত্র সরিয়ে দিতে পারে।

বাজারে বিদ্যমান সুদের হারের ফিউচারস ইঙ্গিত দিচ্ছে যে, বিনিয়োগকারীরা ফেডারেল রিসার্ভ এর আগামী বৈঠকে সুদের হারের মধ্যে আর একদফা ২৫ বেসিস পয়েন্টস হারে হ্রাসের অপেক্ষায় রয়েছেন।

Forexmart

সুইজারল্যান্ডের জুরিখ শহরে অনুষ্ঠিত এক সভায় মার্কিন কেন্দ্রীয়ব্যাঙ্কের প্রধান বলেন, “মার্কিন অর্থনীতির এই ঐতিহাসিক সম্প্রসারণকে ধরে রাখতে হলে আমাদের যা যা করা দরকার তা তা করা হবে।”

এদিকে, সর্বশেষ যা বিশ্বের প্রধান ছয়টি মুদ্রাগুলোর বিপরীতে মার্কিন মুদ্রা ডলারের মূল্যমানকে নির্ধারিত করে থাকে, তা ৯৮.৩৭ পয়েন্টে ছিলো স্থির। এর পূর্বে অবশ্য মার্কিন মুদ্রা ডলারের এই সূচক গত বৃহস্পতিবার ৯৮.০৮ এর পর্যায়কে স্পর্শ করে। তবে, গত সপ্তাহ এই সূচক তার কার্যক্রম শেষ করেছে ০.৬% হরে একটি সাপ্তাহিক তির্যকভাবে পতনের পর।

এদিকে, মার্কিন-চীন বাণিজ্য চুক্তি বিষয়ক আলোচনা পুনরায় চালু হওয়ার ঘোষণায় মার্কিন মুদ্রা তার আন্তর্জাতিক প্রতিযোগীদের বিপরীতে মাঠ হারাতে শুরু করে।

তাছাড়া, ব্রিটেনের মুদ্রা ব্রিটিশ পাউন্ড স্টার্লিং, তার মূল্যমান পূর্বের চেয়ে ০.৪% হরে হ্রাস পেয়ে হয়েছে ১.২২৭৭ মার্কিন ডলার প্রতি পাউন্ড। তবে তা এখনো গত সোমবারের ১.২০ পর্যায়ের চেয়ে উপরে, যখন ব্রিটিশ সংসদের সদস্যরা চুক্তিহীন ব্রেক্সিট এড়ানোর জন্যে আনীত বিলের পক্ষে তাদের মত প্রকাশ করেন, যা আবার অন্যদিকে, একটি মধ্বর্তী নির্বাচনকে আসন্ন হওয়ার ইঙ্গিত বহন করে। এই সপ্তাহে স্টার্লিং তার মূল্যমান ১% হরে উন্নতি করে।

পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করতে গিয়ে UBS Global Wealth এর প্রধান বিনিয়োগ কর্মকর্তা, কারক হাইফেলে বলেন, “ব্রিটিশ মুদ্রার তার মূল্যমান ঘুরে দাঁড়ানোর দিকে সবচেয়ে বড় বাধা হলো আসছে নির্বাচনে ক্ষমতাসীন কনসারভেটিভ পার্টির বিজয়ী হওয়া। এরকম অবস্থায় তারা চুক্তিহীন ব্রেক্সিট এড়ানোর জন্যে অনুমোদিত বিলকে বাতিল করে দিতে পারে, আর যা হলে চুক্তিহীনভাবেই ব্রিটেন ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসবে ফলে বৃদ্ধি পাবে অনিশ্চয়তা।”

তিনি পূর্বাভাস দিয়ে বলেন, “একটি চুক্তিহীন ব্রেক্সিট হওয়ার পরিস্থিতিতে ব্রিটিশ মুদ্রা পাউন্ড তার মূল্যমান মার্কিন মুদ্রা ডলারের বিপরীতে ১.১৫ ডলার প্রতি পাউন্ডের পর্যায়ে নেমে আসবে।”

এদিকে, ডলারের বিপরীতে ইউরোজোনের একক মুদ্রা ইউরো তার মূল্যমান ১.১০২৯ ডলার প্রতি ইউরো এর অবস্থানে স্থির থেকেছে।

IC MARKETS ব্রোকার এ একাউন্ট খুলুন – http://bit.ly/2Jd7FsO

leave a reply