GBP/USD পেয়ারটির উপর যুক্তরাজ্যের CPI এর প্রভাব!

GBP/USD পেয়ারটির উপর যুক্তরাজ্যের CPI এর প্রভাব! GBP/USD: টেকনিক্যাল এনালাইসিস | ২০শে নভেম্বর, ২০২০

MarketDeal24.Com – যুক্তরাজ্যে বসবাস করার খরচকে Consumer Price Index (CPI) দ্বারা প্রকাশ করা হয়ে থাকে, যা কিনা বুধবারে ৭টার (জিএমটি) সময় প্রকাশিত হতে যাচ্ছে। বর্তমান ব্রেক্সিট নাটক এবং করোনা ভাইরাসের হেডলাইনের সাথে মুদ্রাস্ফীতি রিপোর্ট যুক্ত হয়ে GBP/USD ট্রেডারদের ভালোই চিন্তার মধ্যে রাখবে। এছাড়া আজকে বিকাল ৪টা ৩০ মিনিটে (জিএমটি) ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের গভর্নর এন্ড্রু বেইলি বক্তব্য রাখবেন।

বাৎসরিক হিসেবে CPI মুদ্রাস্ফীতি কিছুটা উন্নতি হয়ে ০.৫% থেকে ০.৬% হবে। Core CPI, যার মধ্যে খাদ্য ও এনার্জি অন্তর্ভুক্ত তা অপরিবর্তিত অবস্থায় ১.৩% তেই থাকবে বাৎসরিক হিসেবে। আর মাসের হিসেবে CPI এর পূর্বাভাস অনুযায়ী -০.১% হওয়ার কথা, যেখানে আগের মাসে ০.৪% ছিলো।

বুধবারে লন্ডন সেশনের আগে GBP/USD পেয়ারটি মার্কিন ডলারের দূর্বলতার সুযোগের ব্যবহার করবে। এছাড়া যুক্তরাজ্য ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের মধ্যে পরের সপ্তাহের প্রথম দিকে একটি বাণিজ্য চুক্তি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সব মিলিয়ে GBP/USD পেয়ারটি ০.০৭% বৃদ্ধি পেতে পারে।

এছাড়া ব্রেক্সিট চুক্তির ক্ষেত্রে ফ্রান্স তাদের মাছ ধরার ক্ষেত্রে যে শর্ত রেখেছিল তা তুলে নিয়েছে। তবে অনেক ক্ষেত্রেই এখনো দুই পক্ষের মধ্যে মতের অমিল রয়েছে। যদি দুইপক্ষ কোনো সিদ্ধান্তে না আসতে পারে তাহলে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন বৃদ্ধির চাপ ব্রিটিশ পাউন্ডের উপর পড়বে। এছাড়া মুদ্রাস্ফীতি রিপোর্ট যদি নেতিবাচক আসে তাহলেও পাউন্ডের উপর প্রভাব পড়বে।

Forexmart

টেকনিক্যালি 1.3195 এর আসগেপাশে একটি মিলিত 10-day SMA এবং নভেম্বর ২ এর নিম্নমুখী ট্রেন্ড লাইনটি GBP/USD এর জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবে।

leave a reply