GBP/USD: সাপ্তাহিক টেকনিক্যাল এনালাইসিস

GBP/USD: সাপ্তাহিক টেকনিক্যাল এনালাইসিস GBP/USD: সাপ্তাহিক টেকনিক্যাল এনালাইসিস

সাপ্তাহিক লাভ/লস: -0.22%

সাপ্তাহিক ক্লোজ: 1.3048

GBP/USD সাপ্তাহিক টাইমফ্রেম:

সম্প্রতি সাপ্তাহিক টাইম ফ্রেমে 1.5930 থেকে শুরু হওয়া ট্রেন্ড লাইন রেসিস্টেন্স ব্রেক করে GBP/USD পেয়ারটি উপরে উঠলেও ২০১৯ সালের ৯ই ডিসেম্বরের সর্বোচ্চ 1.3514 কে এখনো ছুঁতে পারেনি। উপরে উল্লেখিত লেভেলটি ব্রেক করলে ট্রেন্ড পরিবর্তন হতে পারে।

ট্রেন্ড লাইন রেসিস্টেন্সকে অতিক্রম করার পরে সাপ্তাহিক টাইম ফ্রেমে প্রাইস আবার উপরে উঠার সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে, যদিও গত সপ্তাহে প্রাইস কিছুটা হ্রাস পেয়েছিল। ২০২০ সালের ওপেনিং লেভেল 1.3250 তে রেসিস্টেন্স দেখা যেতে পারে, যা কিনা 161.8% Fibonacci extension point 1.3308 এর ঠিক নীচেই অবস্থিত।

Forexmart

এই সপ্তাহে উপরে উল্লেখিত রেসিস্টেন্সকে অতিক্রম না করে প্রাইস হ্রাস পেলে ২০১৯ সালের ওপেনিং লেভেল 1.2739 তে পরীক্ষিত হতে পারে।

ডেইলি টাইমফ্রেম:

গত সপ্তাহে Quasimodo রেসিস্টেন্স 1.3173 কার্যকর অবস্থায় ছিল, যা কিনা রেসিস্টেন্স 1.3250 এর ঠিক নীচেই অবস্থিত। এছাড়া ২০২০ সালের ওপেনিং লেভেল ও একই স্থানে অবস্থান করছে।

এই সপ্তাহে মূল্যহ্রাস পেলে প্রাইস 1.2769/1.2846 তে নেমে যেতে পারে, যা কিনা 200-day SMA (orange – 1.2705) এবং সর্বনিম্ন 1.1409 থেকে নেওয়া ট্রেন্ড লাইন সাপোর্ট এর উপরেই অবস্থিত।

চার ঘন্টার টাইমফ্রেম:

শুক্রবারে GBP/USD পেয়ারটি তার মূল্যহ্রাস কিছুটা অব্যাহত রেখেছিল যেখানে বৃহস্পতিবারে পাঁচ মাসের সর্বোচ্চ 1.3185 থেকে মূল্য হ্রাস পেয়ে 1.31 কে ব্রেক করে নীচে নেমে গিয়েছিল যেহেতু মার্কিন NFP প্রকাশিত হওয়ার পরে মার্কিন ডলার ইনডেক্স বৃদ্ধি পেয়েছে।

1.31 কে অতিক্রম করে নীচে নামার পরে পেয়ারটির সেলিং প্রেশার বৃদ্ধি পেয়েছে 1.30 লেভেলকে সামনে রেখে। এখানে গুরুত্বপূর্ন বিষয় হলো 1.30 লেভেলটি Quasimodo সাপোর্ট (red arrow – 1.3004) এর সাথে সম্পর্কিত। এর নীচে ট্রেডারদেরকে সাপোর্ট দেওয়ার জন্য রয়েছে 1.2939 এবং 1.29 হ্যান্ডেল।

বিবেচনার জায়গাগুলো:

যদিও সাপ্তাহিক প্রাইস নির্দেশ করছে যে প্রাইস 1.3250 এর দিক যাবে তবে ডেইলি প্রাইস Quasimodo রেসিস্টেন্স 1.3173 দ্বারা আটকে আছে এবং হ্রাস পেয়ে 1.2769/1.2846 তে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

EUR/USD: সাপ্তাহিক টেকনিক্যাল এনালাইসিস