Online Trading | ট্রেডিং-এ ইতিবাচক চিন্তাধারাকে ইতিবাচক ফলাফলে পরিণত করার ৪টি উপায়

Online Trading | ট্রেডিং-এ ইতিবাচক চিন্তাধারাকে ইতিবাচক ফলাফলে পরিণত করার ৪টি উপায় Online Trading | ট্রেডিং-এ ইতিবাচক চিন্তাধারাকে ইতিবাচক ফলাফলে পরিণত করার ৪টি উপায়

MarketDeal24.Com – Online Trading | সফলতা অর্জন করাটা, তা সেই সফল ট্রেডিং, ব্যবসা কিংবা অভিভাবক হওয়ার ক্ষেত্রে অর্জন করতে হলেও প্রচুর পরিমাণে ব্যক্তিগত উন্নতি সাধনের প্রয়োজন হয়।

আপনি চারপাশের জগৎটা নিয়ে অনেক বেশি চিন্তায় থাকবেন। সেই চিন্তা হতে পারে ফরেক্স মার্কেট, আপনার কর্মচারী কিংবা সহকর্মী অথবা আপনার সন্তান সন্তানাদি নিয়ে। আর আপনি চারপাশে ঘিরে থাকা বিভিন্ন চ্যালেঞ্জের আগে বা চ্যালেঞ্জ গ্রহণের সময় কিংবা চ্যালেঞ্জ গ্রহণের পর কীভাবে কী প্রতিক্রিয়া দেখাবেন তার মাধ্যমেই কিন্তু আপনার যোগ্যতা নির্ণয় করা হবে।

কারেন্সি ট্রেডারদের জন্য কমবেশি সবার ক্ষেত্রেই এমন কিছু দিন বা সপ্তাহ আসে যখন কোনো কিছুই আমাদের অনুকূলে থাকে না।

আমাদের একের পর এক পরাজয় অধিকাংশ সময়েই সকল সাফল্যকে ম্লান করে ফেলে। এছাড়া দুঃখজনক হলেও সত্যি আমরা সবসময় টানা সাফল্য অর্জন করে যেতে পারি না। একসময় আমরা দ্বিধায় পড়ে যাই। ভাবতে থাকি আদৌ কি কখনো ট্রেডিং এর মাধ্যমে অর্থ উপার্জন সম্ভব হবে কি না। এছাড়াও একজন ফুল টাইম ফরেক্স ট্রেডার হওয়ার সম্ভাবনা আমাদের জন্য কতটুকু বাস্তব হয়ে দেখা দেবে সেটাও পরবর্তীতে মনের ভিতর প্রশ্ন জাগায়।

Forexmart

“কেনো এই ফরেক্স ট্রেডিং এর জগতে পা রাখলাম? এখানে শুধু মানসিক চাপ আর টেনশন। ট্রেডিং নিয়ে সবসময় বিশাল মাথাব্যথা। এসব কী করছি আমি? কেনো করছি? মনে তো হচ্ছে আমার চুল সব পড়ে যাচ্ছে।”

যদি আপনার মনের অবস্থা এমনই হয় আর নিজেকে যদি উপরোক্ত প্রশ্নগুলো করে থাকেন তাহলে একটু বিরতি নিয়ে নিজেকে সময় দিন। এবং নিজের ইতিবাচক চিন্তাগুলো নিয়ে গঠনমূলক কিছু করার চেষ্টা করুন।

যে কোনো সফল ফরেক্স ট্রেডারই আপনাকে বলবে সে নিজের মানসিক সিদ্ধান্ত যতটা সম্ভব ইতিবাচক করেই এ জগতে পা রাখে এবং সেই ইতিবাচক মনোভাব তার চিন্তায়, কাজে কর্মে, সিদ্ধান্তেও প্রযোজ্য হয় এবং প্রতিকূল সময়েও ইতিবাচক থেকে ট্রেডে সফলতা অর্জন করে। এই ইতিবাচক মনোভাবই যে কোনো প্রতিকূল অবস্থায় একজন সফল ট্রেডারকে সাফল্য দান করে।

ইতিবাচক চিন্তা হয়তো আপনি সঠিক পথে স্থির রাখতে পারবে কিন্তু এটাও ঠিক ইতিবাচক চিন্তাও সবসময় নিশ্চিত করাটা সম্ভব হয় না।

তাহলে এক্ষেত্রে করণীয় কী? নিচে তা বর্ণিত হলো:

১. দিনের শুরু থেকেই ইতিবাচক মনোভাব বজায় রাখুন

সকালে উঠেই আয়নার দিকে তাকান এবং বলুন, “আমি যথেষ্ট ভালো এবং যোগ্য অবস্থায় আছি। আমার কাজে আমি যথেষ্ট দক্ষ এবং চটপটে। তার চেয়েও বড় কথা লোকজন সবাই আমাকে পছন্দ করে।” এবং এই কথাগুলো প্রচণ্ড উৎসাহের সাথে বলুন। এমনভাবে বলুন যেন আপনি টিভি অনুষ্ঠানের উপস্থাপক।

হয়তো এই কথাগুলো শুনলে অনেকেরই হাসি পাবে, অনেকেই এই কথাগুলোকে অবান্তর কথাবার্তা বলে উড়িয়ে দেবে কিন্তু হাসবেন না। সত্যি বলছি! নিজেকে নিজের কাছে ভালোভাবে উপস্থাপন করাটাও সঠিক পথে যাওয়ার ক্ষেত্রে বিরাট এক সূচনা এবং তা কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

সঠিক মনোভাব বজায় রাখার ক্ষেত্রেও এই উদ্যোগটি অনেকটাই সহায়ক। এবং এর মাধ্যমেই দিনের শুরুটা আপনি ইতিবাচক মনোভাব দিয়ে করতে পারবেন। যদি আয়নায় নিজের দিকে তাকাতে ভয় পান তাহলে অন্ততপক্ষে কথাগুলো নিজে নিজেই স্পষ্ট করে সশব্দে বলুন।

২. নেতিবাচক চিন্তাভাবনা ঝেড়ে ফেলুন

নিজের নেতিবাচক চিন্তাভাবনাগুলো আগে চিহ্নিত করুন এবং একটি সহজ সত্য বোঝার চেষ্টা করুন। আর তা হলো আপনি একাই কেবলমাত্র সেই নেতিবাচক চিন্তাগুলো নিজের ভিতরে ঝেড়ে ফেলতে পারে। যখন সেই সকল নেতিবাচক চিন্তা নিজের ভিতর থেকে বের করে ফেলতে পারবেন তখনই কেবলমাত্র আপনার পক্ষে ইতিবাচক চিন্তাভাবনা করা সম্ভব হবে। এরই মাধ্যমে আপনি ইতিবাচক মনোভাব গড়ে তুলতে পারবেন।

ফরেক্স মার্কেটে উত্থান পতন থাকবেই। আপনার ট্রেডিং এর ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য। সবার ক্ষেত্রেই এমনটা ঘটে থাকে।

নিজেকে একজন সফল ট্রেডার হিসেবে ভাবুন এবং কল্পনা করুন। কল্পনা করুন ইতিবাচক ফলাফলের ব্যাপারে। কী পরিমাণ সম্পদ অর্জন তা নিয়ে ভাবুন। কেমন ধরনের জীবনযাত্রা আপনি পছন্দ করবেন তা নিয়ে ভাবুন। এ ধরনের চিন্তাগুলো আপনাকে বিভিন্ন ধারণা তৈরি করতে সাহায্য করবে। আপনি তখন কারেন্সি মার্কেটের প্রতি আরো আগ্রহী হবেন। তখন নিজেই নিজেকে উৎসাহ দিতে পারবেন।

৩. নিজের ভেতরের ইতিবাচক মনোভাব বের করে আনুন

ইতিবাচক চিন্তাভাবনা আনয়নের আরেকটি সহজ উপায় হলো নিজেকে ইতিবাচক পরিবেশের মধ্যে সর্বক্ষণ রাখা। ইতিবাচক পরিবেশ হতে পারে আপনার কাজের জায়গা কিংবা তা হতে পারে আপনার আশপাশের মানুষ। এই দুনিয়ায় নেতিবাচক চিন্তাভাবনা করার এবং সবসময় সন্দেহ করার মতো মানুষের কোনো অভাব নেই। এমন অনেক মানুষই পাবেন যারা আপনার স্বপ্নকে ধ্বংস করে এবং আপনার ইতিবাচক চিন্তাভাবনা নষ্ট করার চেষ্টা করবে।

আপনার চারপাশে যদি ইতিবাচক চিন্তাভাবনার অধিকারী মানুষেরা থাকে তাহলে আপনার জন্য ইতিবাচক হওয়াটা অনেক সহজ হয়ে যাবে। এটাই আপনার ফরেক্স ট্রেডিং এ অনেক সাহায্য করবে। আর আপনার ট্রেডিং করার জায়গায় ইতিবাচক পরিবেশ বজায় থাকলে আপনার সেখানে কাজ করার আগ্রহও বাড়বে। পরিবেশ ইতিবাচক করার শুরুটা হতে পারে আপনার কর্মক্ষেত্রের অপ্রয়োজনীয় জঞ্জালগুলো সরিয়ে ফেলার মাধ্যমে।

৪. ইতিবাচক মনোভাব সর্বত্র ছড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করুন

সবসময় ইতিবাচক কথাবার্তা বলার অভ্যাস গড়ে তুলুন। এবং তা বজায় রাখুন নিজের থেকে শুরু করে আশপাশের সবার জন্য। নিজের সঙ্গেও কখনো নেতিবাচক মনোভাব নিয়ে কোনো কিছু চলমান রাখবেন না। এতে আপনার প্রতিভা বিকশিত হওয়া বাধাপ্রাপ্ত হবে। ট্রেডার হিসেবেও আপনার অগ্রগতি থেমে যাবে। থেমে যাবে আপনার যাবতীয় উন্নতি।

কারেন্সি মার্কেটের সকল প্রতিবন্ধকতা স্বাগত জানানোর চেষ্টা করুন। সেগুলোকে আপনার মুনাফা এবং সাফল্যের চাবিকাঠি মনে করুন। এসকল প্রতিবন্ধকতা নিয়ে লড়তে পারলে এবং ইতিবাচক মনোভাব বজায় রাখতে পারলে আপনার ট্রেডিং অভিজ্ঞতা আরো উন্নতির দিকে অগ্রসর হবে।

বদলে ফেলুন ছোটখাটো নেতিবাচক ভাবনা। এভাবেই শুরুটা হোক। অন্যদের ব্যাপারেও চিন্তা করুন। ট্রেডিং নিয়েও দীর্ঘমেয়াদী চিন্তায় অগ্রসর হোন। তাহলে দেখবেন ভবিষ্যতে একজন সফল ট্রেডার হওয়াটা আপনার জন্য অনেক সহজ হয়ে যাবে।

ইতিবাচক মনোভাব মানেই সফলতা নয় কিন্তু আপনার এই মনোভাব ট্রেডে সফল হওয়ার ক্ষেত্রে অনেক সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। আর ফরেক্স ট্রেডিং এর প্রতিযোগিতামূলক জগতে যে সুযোগই আপনার সামনে আসবে তাই লুফে নিতে হবে। Online Trading

Candlestick Patterns | ২০২০ সালের জন্য সেরা ৪টি ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন

  • Trading Tips | কমফোর্ট জোনের বাইরে গিয়ে ট্রেড করার ৩ টি টিপস
    এপ্রি ১১, ২০২০

leave a reply